1 ভরি সোনার দাম কত টাকা ২০২৪

বাংলাদেশে সোনার দাম প্রতিনিয়ত উঠানামা করে থাকে। বর্তমানে পূর্বের থেকে সোনার দাম একটু দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। ডলার সংকটে এবং ডলারের অবস্থার পরিবর্তনের কারণে সোনার দামের অনেকটা তারতম্য হয়ে থাকে। বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্বে এই সোনাকে বিভিন্নভাবে ব্যবহার করা হয়। সোনা অতি মূল্যবান এক হলুদ বর্ণের ধাতু। সেই প্রাচীনকাল থেকে বিভিন্নভাবে মানুষ এই সোনাকে ব্যবহার করে আসছে।

পূর্বে বাংলাদেশ সোনার দাম অনেকটা কম ছিল। অর্থাৎ প্রতি ভরি স্বর্ণের এর মূল্য ছিল ৮০ হাজার থেকে এক লক্ষ টাকার মধ্যে। কিন্তু বর্তমানে এক ভরি সোনার মূল্য প্রায় লাখ টাকার উপরে। যেমন কিছুদিন পূর্বেও ২২ ক্যারেট ১ ভরি সোনার মূল্য ছিল ৯৭ হাজার ৪৪ টাকা। অতএব এত টাকা দিয়েও একজন ব্যক্তির এক ভরি স্বর্ণ ক্রয় করা অনেকটা দুঃসাধ্যকর করছিল। তারই পরি প্রেক্ষিতে বর্তমানে সোনার দাম আরো বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে জেনে রাখুন 1 ভরি সোনার দাম কত টাকা।

1 ভরি সোনার দাম কত টাকা

বাংলাদেশের যেমন সোনা প্রতিনিয়ত ব্যবহার করা হয়, তেমনি পরিবেশে এই সোনাকে বিভিন্নভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এবং বাংলাদেশের মেয়েরা সোনা দিয়ে গয়না তৈরি করতে সবথেকে বেশি পছন্দ করে। এমনকি প্রাচীনকালে এই সোনাকে বিভিন্ন মুদ্রার তৈরি করতে এবং বিভিন্ন আসবাবপত্র তৈরি করতো বলে জানা যায়। তবে বর্তমানে বিভিন্ন জায়গায় সোনাকে ব্যবহার করা হয়।

সোনা অত্যন্ত ভালো কন্ডাকটর হিসেবে কাজ করে বিধায় বর্তমানে স্মার্টফোনে এই সোনা ব্যবহার করা হয়। অতএব ৪০টি স্মার্ট ফোনে প্রায় ১ গ্রাম স্বর্ণ পাওয়া যায়। এছাড়া রূপচর্চার কাজেও সোনাকে ব্যবহার করা যায়। দাঁতের চিকিৎসায় ব্যবহার করা যায়। এমনকি বিভিন্ন আধুনিক চিকিৎসায় পর্যন্ত এই সোনাকে বিভিন্নভাবে ব্যবহার করা হয়।

তবে বাংলাদেশের যেহেতু সোনাকে সবথেকে বেশি গয়না তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়। সেহেতু প্রত্যেকের জন্য রাখা উচিত 1 ভরি সোনার দাম কত টাকা। আর কেননা প্রতিনিয়ত সোনার দাম বাংলাদেশের পরিবর্তন হচ্ছে। তবে প্রত্যেকের সোনা ক্রয় করার সময় অবশ্যই হলমার্ক দেখে সমাপ্ত করা উচিত। তাই আজকের আলোচনায় হলমার্ক করা ১ ভরি সোনার দাম কত তা নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। তাই সম্পূর্ণ পোস্ট দেখুন।

1 ভরি সোনার দাম কত

বিভিন্ন ক্যারেটের বাংলাদেশে পাওয়া যায়। ২১ ক্যারেট, ২২ ক্যারেট এবং ১৮ ক্যারেট সোনা পাওয়া যায়। প্রায় প্রত্যেকের সোনা বাংলাদেশের কম বেশি অনেক ব্যবহার করা হয়। প্রত্যেক সোনা দিয়েই প্রায় গয়না খুব ভালোভাবে তৈরি করা যায়। বর্তমানে ১ ভরি সোনার মূল্য প্রায় ১ লক্ষ টাকার উপরে। প্রথমত ১ ভরি সোনার মূল্য ১ লক্ষ দুই হাজার টাকা ছিল। তার কিছুদিন পর এ দাম পরিবর্তন হয়ে প্রায় ৯৭ হাজার ৪৪ টাকা হয়েছিল।

কিন্তু বর্তমানে আবারও এই এক ভরি সোনার দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। অর্থাৎ ২২ ক্যারেট এক ভরি সোনার মূল্য ১ লক্ষ ৪ হাজার টাকা। জেনে রাখুন প্রত্যেক স্বর্ণের মূল্য বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি কর্তৃক নির্ধারিত হয়ে থাকে। আর এখানে হুবহু বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি কর্তৃক স্বর্ণের মূল্য আপডেট করলে করা হয়েছে। তাই এখান থেকে নিঃসন্দেহে সঠিক দাম জেনে সোনা ক্রয় করতে পারেন।

২২ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম

বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি কর্তৃক আজকের নভেম্বরের আপডেট তথ্য অনুযায়ী ২২ ক্যারেট এক গ্রাম স্বর্ণের মূল্য ৮৯৭০ টাকা। যা কিছুদিন পূর্বে এই স্বর্ণের মূল্য ছিল ৮৯২০ টাকা। অতএব প্রতি গ্রাম ২২ ক্যারেট সোনাতে ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকা মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। অতএব কিছুদিন পূর্বেও ২২ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম ছিল ১ লাখ ৫৪৪ টাকা। আজ বর্তমান ২২ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম ১ লক্ষ ৪ হাজার ৬২৬ টাকা।

এছাড়াও জেনে রাখুন এখন ২২ ক্যারেট এক আনা সোনার দাম ৬৫২৯.১৩ টাকা। এবং ২২ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম ২৬ হাজার ১৫৬ টাকা ৫২ পয়সা। এছাড়াও এই সোনার দাম যে কোন মুহূর্তে পরিবর্তন হতে পারে। তাই সর্বদা আপডেট তথ্য জানতে আমাদের সাথেই থাকুন। আমরা এখানে হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ ভরি সোনার মূল্য সঠিক ভাবে উল্লেখ করেছি।

২১ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম

হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ১ গ্রাম স্বর্ণের ৮৫৬৫ টাকা। এই ২১ ক্যারেট সোনা দিয়ে বাংলাদেশের নারীরা গয়না তৈরি করতে বেশি পছন্দ করে। কানের দুল, হাতের বালা এবং গলার হার বানাতে বেশ পছন্দ করে থাকেন। এবং এই ২১ ক্যারেট সোনা দিয়ে অলংকার তৈরি করতে একদম গ্রহণীয়। জেনে রাখুন ২১ ক্যারেট স্বর্ণের 14 আনা বিশুদ্ধ খাঁটি সোনা অন্তর্ভুক্ত থাকে।

আর কিছুদিন পূর্বে ২১ ক্যারেট ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য ছিল ৯২ হাজার ৫৮০ টাকা। কিন্তু বর্তমানে ২১ ক্যারেট এই 1 ভরি সোনার দাম অনেকটা বৃদ্ধি পেয়েছে। অর্থাৎ ২১ ক্যারেট এক ভরি সোনার দাম ৯৯ হাজার ৯০২ টাকা ১৬ পয়সা। এবং এক আনা সোনার দাম ৬২৪৩ টাকা ৮৮ পয়সা। তবে এই ২১ ক্যারেট সোনার মূল্য যে কোন সময় পরিবর্তন হতে পারে। বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি কর্তৃক এ সকল সোনার মূল্য নির্ধারণ করা হয়।

  • বর্তমানে ২১ ক্যারেট এক ভরি সোনার মূল্য ৯৯ হাজার ৯০২ টাকা ১৬ পয়সা।

১৮ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম

এই ১৮ ক্যারেট সোনাতে ১২ আনা সোনা বিশুদ্ধ থাকে। আর অন্যান্য সোনা থেকে ১৮ ক্যারেট সোনা অনেক মজবুত হয়ে থাকে। গলার হার এবং পায়ের নুপুর সহ বিভিন্ন ধরনের অলংকার তৈরি করতে বাংলাদেশের মেয়েরা এই ১৮ ক্যারেট সোনাকে ব্যবহার করে থাকে। এই ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের মধ্যে ৭৫ শতাংশ স্বর্ণের সাথে ২৫ শতাংশ মিশ্রিত অন্য ধাতু যেমন তামা বা রুপা ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত থাকে।

আর বর্তমানে সকল সোনার ভিতর হলমার্ক করা থাকে। এবং লেখা থাকে কোনটি কোন ক্যাটাগরির সোনা। তাই আপনি ১৮ ক্যারেট সোনা দেখলেই খুব সহজেই চিনতে পারবেন। অতএব বর্তমানে যারা বিভিন্ন অলংকার তৈরির জন্য ১৮ ক্যারেট সোনা ক্রয় করতে চাচ্ছেন। তারা এখান থেকে হলমার্ক করা সোনার দাম। অর্থাৎ বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি কর্তৃক ১৮ ক্যারেট ১ গ্রাম স্বর্ণের মূল্য ৭৩৪০ টাকা।

আর ১৮ ক্যারেট ১ ভরি সোনার মূল্য ৮৫ হাজার ৬১৩ টাকা। যেখানে একমাস পূর্বেও এই ১৮ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম ছিল ৮২ হাজার ২৩১ টাকা। অর্থাৎ ১ মাসের মধ্যে 18 ক্যারেট সোনার মূল্য প্রায় তিন হাজার টাকার বৃদ্ধি পেয়েছে। এবং ১৮ ক্যারেট এক আনা সোনার মূল্য ৫৩৫০ টাকা।

  • ১৮ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম : ৮৫ হাজার ৬১৩টাকা।
  • ১৮ ক্যারেট ১ আনা সোনার দাম : ৫৩৫০.৮৬ টাকা।
  • ১৮ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম : ২১৪০৩.৪৪ টাকা।
  • ১৮ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার দাম : ৭৩৪০ টাকা।

সৌদি আরবে ১ ভরি স্বর্ণের দাম কত

সৌদি আরবের ১ গ্রাম স্বর্ণের দাম হচ্ছে ২৩০ রিয়াল। যদি বাংলাদেশী টাকায় এই সোনার দাম হিসাব করতে চান তাহলে আপনাকে সৌদি আরবের এক টাকা সমান বাংলাদেশের কত টাকা জানতে হবে। অর্থাৎ সৌদি আরবের ১ টাকা সমান বাংলাদেশের ২৯ টাকা ৫৩ পয়সা। অর্থাৎ সৌদি আরবের ১ গ্রাম স্বর্ণের মূল্য ৬৭৯১ টাকা।

অতএব সৌদি আরবের ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য ৭৯ হাজার ২২০ টাকা ৭২ পয়সা। এছাড়াও ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য এর থেকেও কিছুটা কম। অর্থাৎ ৭০ থেকে ৭৫ হাজার টাকায় অন্যান্য ক্যারেটের সোনা পেয়ে যাবেন। তবে মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশগুলোতে সোনা উত্তোলন করা হয়। বিদায় বাংলাদেশ থেকে অন্যান্য দেশের থেকে ওই দেশের সোনার মূল্য অনেকটা কম।

  • সৌদি আরব ২২ ক্যারেট ১ ভরি সোনার দাম ৭৯২২০.৭২ টাকা।
  • সৌদি আরব ২২ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার দাম ৬৭৯১ টাকা।
  • সৌদি আরব ২২ ক্যারেট ১ আনা সোনার দাম ৪৯৫১.২০ টাকা।
  • সৌদি আরব ২২ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম ১৯৮০৫ টাকা।

দুবাই ১ ভরি সোনার দাম কত

সর্বশেষ আপডেট তথ্য অনুযায়ী দুবাইয়ের ২২ ক্যারেট এক ভরি সোনার মূল্য ৭৭৮১৪ টাকা। যদি দুবাইয়ের সোনার মূল্য জানতে চান তার আগে আপনাকে দুবাইয়ের টাকার মান সম্পর্কে জানতে হবে। যেমন দুবাইয়ের এক টাকা আর বাংলাদেশের ৩০ টাকা ১৫ পয়সা।

অতএব দুবাইয়ের সোনার মূল্য বাংলাদেশের থেকেও প্রায় ৩০ হাজার টাকা কম পাওয়া যায়। দুবাইয়ের বিভিন্ন জায়গায় সোনা উত্তোলন করা হয় এবং বেশ জায়গায় সোনার খনি রয়েছে। এই কারণ সহ বিভিন্ন কারণে দুবাইয়ের সোনার মূল্য বাংলাদেশ থেকে অনেক কম।

1 ভরি সোনার দাম কত ভারতে

বাংলাদেশের টাকা অনুযায়ী ভারতের ২২ ক্যারেট এক ভরি স্বর্ণের মূল্য ৭০৭৭০.২৫ টাকা। এবং  ১৮ ক্যারেট এবং ২১ ক্যারেট সোনার মূল্য ৪৯ হাজার থেকে ৫৫ হাজার টাকায় পাওয়া যায়। এমনকি পুরাতন অর্থাৎ সনাতন পদ্ধতির সোনার মূল্য এর থেকেও আরো কম। কিন্তু বাংলাদেশে এই সোনার মূল্য অনেক বেশি।

1 ভরি সমান কত তোলা

অনেকে রয়েছে যারা ভরি এবং তোলা সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানেন না।  অনেকে রয়েছেন আবার ভরি সম্পর্কে জানলেও তোলা সম্পর্কে জানেন না। অর্থাৎ এক ভরিকে অনেকেই তোলা হিসেবে চিনে থাকে। অতএব এক ভরি=১ তোলা। বর্তমানে ২২ ক্যারেট ১ তোলা সোনার মূল্য ১ লক্ষ ৪ হাজার ৬২৬ টাকা।

১ ভরিতে কত গ্রাম

যদি সহজে সোনার হিসাব আপনারা জানতে চান তাহলে নিচের এই তালিকাটি দেখতে পারেন। অর্থাৎ 6 রতি সমান সমান এক আনা। এবং ষোল আনাস সমান সমান ১ ভরি। আর এক ভরি সমান সমান ১১.৬৬ গ্রাম। 

  • ০৬ রতি = ০১ আনা;
  • ১৬ আনা = ০১ ভরি;
  • ০১ ভরি = ১১.৬৬ গ্রাম (প্রায়)
  • ০১ কেজি= ৮৫.৭৩ ভরি (প্রায়)

১ ভরি কত আনা

অনেকেই রয়েছেন যারা সোনা ক্রয় করে থাকেন আনা হিসেবে। এবং আনা হিসেবে সোনা ক্রয় করে বিভিন্ন অলংকার তৈরি করে থাকেন। যেমন অনেকে রয়েছেন ২ আনা,৪ আনা আনা দিয়ে ছোটখাটো নাকের তা এবং কানের দুল বানানোর চেষ্টা করে থাকেন। তো আপনাদের ভরি এবং আনা হিসাব সহজে বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য এখানে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আমরা জানি ১ ভরি সমান সমান ১১.৬৬৪ গ্রাম। অর্থাৎ ১ ভরি সমান সমান ১৬ আনা।

  • ১ ভরি সমান সমান ১৬ আনা।

১ ভরি স্বর্ণের যাকাত কত ২০২৪

আপনার কাছে যদি অনেক বেশি পরিমাণ সোনার ভরি বা তার থেকে বেশি পরিমাণ সোনা থাকে এবং সেই সোনা যদি এক চন্দ্র বছর পর্যন্ত জমা থাকে তাহলে সেই সোনার মূল্যের মোট 40 ভাগের একভাগ অর্থাৎ শতকরা হিসেব করলে ২.৫ টাকা। অতএব সহজভাবে বুঝাতে গেলে প্রতি 100 টাকায় ২.৫ টাকা যাকাত দিতে হবে। 

পুরাতন সোনার মূল্য প্রতি ভরিতে

পুরাতন পদ্ধতিতে সোনার মূল্য বেশ খানিকটা কম। তবে পূর্বের থেকে এই পুরাতন সোনার মূল্য একটি বৃদ্ধি পেয়েছে। যেমন পূর্বে বে সনাতন পদ্ধতি অর্থাৎ পুরাতন পদ্ধতিতে সোনার মূল্য ছিল এক ভরি স্বর্ণের দাম ৬৬ হাজার ১১২ টাকা। এবং এক আনা সোনার দাম ছিল ৪১৩২.০১ টাকা। ৪ আনা স্বর্ণের দাম ছিল ১৬৫২৮.০৫ টাকা। ১ গ্রাম স্বর্ণের দাম ছিল ৫৬৭০ টাকা।

আর বর্তমানে পুরাতন অর্থাৎ সনাতন পদ্ধতি সোনার মূল্য প্রতি গ্রাম ৬১১৫ টাকা। এবং পুরাতন সোনার প্রতি ভরি মূল্য ৭১ হাজার ৩২৫ টাকা ৩৬ পয়সা। এবং পুরাতন সোনার এক আনার মূল্য ৪ হাজার ৪৫৭ টাকা ৮৩ পয়সা। এবং ৪ আনা পুরাতন সোনার মূল্য ১৭ হাজার ৮৩১ টাকা ৩৪ টাকা।

বাজুস কর্তৃক বাংলাদেশ আজকে ১ ভরি স্বর্ণের দাম কত

জেনে রাখুন বাজুস কর্তৃক বর্তমানে হলমার্ক কর্তৃক সোনার মূল্য নির্ধারিত করা হয়। এবং আপনারা যখনই সোনা ক্রয় করবেন তখন অবশ্যই সোনাতে উল্লেখিত হলমার্ক চিহ্ন দেখে ক্রয় করবেন। কেননা প্রতি হলমার্ককৃত সোনাতে ক্যারেট হিসেবে নাম লেখা থাকে। অর্থাৎ খুব সহজে বুঝতে পারবেন আপনার  ক্রয় কৃত সোনা কত ক্যারেটের।

তবে আপনারা চাইলে বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতির অফিসিয়াল https://www.bajus.org/gold-price ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে সঠিক দাম জেনে নিতে পারেন। তবে আপনাদের সুবিধার জন্য বাজুস কর্তৃক এক ভরি স্বর্ণের মূল্য উল্লেখ করা হলো। অর্থাৎ ২২ ক্যারেট এক ভরি স্বর্ণের মূল্য ১ লক্ষ ৪ হাজার ৬২৬ টাকা। এবং ২১ ক্যারেট এক ভরি স্বর্ণের মূল্য ৯৯ হাজার ৯০২ টাকা ১৬ পয়সা। এবং ১৮ ক্যারেট ১ ভরি সোনার মূল্য ৮৫ হাজার ৬১৩টাকা।

শেষ কথা

আশা করতেছি এই পোস্ট থেকে আপনারা ইতিমধ্যে 1 ভরি সোনার দাম কত টাকা বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। সম্পূর্ণ সঠিক মূল্য এখানে উল্লেখ করার চেষ্টা করা হয়েছে। আপনারা চাইলে আমাদের এখান থেকে দাম জেনে নিয়ে যেকোনো ক্যারেটের সোনা ক্রয় করতে পারেন।

তবে সোনা ক্রয় করার জন্য অবশ্যই বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতির নিজস্ব অফিশিয়াল ওয়েবসাইট গুলোর মূল্য তালিকা ফলো করবেন। তবে আমরা প্রতিনিয়ত এ সকল সোনার আপডেট করে থাকি। আপনার কাছে এই পোস্ট উপকৃত মনে হলে অবশ্যই অন্যদের মাঝে শেয়ার করুন।

Leave a Comment