সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় জানুন

যদি খুব অল্প দিনে মোটা হতে চান তাহলে আপনাকে প্রচুর উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে। অর্থাৎ সাত দিনে খুব বেশি মোটা না হওয়া গেলেও আপনার শরীরের বেশ খানিকটা পরিবর্তন দেখা দিবে। এজন্য অল্প পরিসরে ঘি, মাখন ডিম, ইত্যাদি খেতে পারেন। এছাড়া উল্লেখযোগ্য খাবার গুলো কোমল পানীয়, গরু ছাগলের মাংস, আলুভাজা, চকলেট খেজুর ইত্যাদি এই ধরের খাবার গ্রহন করতে হবে বেশি করে।

এছাড়াও অনেক খাবারের বিভিন্ন আইটেম রয়েছে। যে খাবারগুলো নিয়মিত গ্রহণ করলে আপনি সাত দিনেই মোটা হতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনাকে খুব বেশি পরিশ্রম করতে হবে খাওয়া দাওয়ার ব্যাপারে। যেমন সর্বনিম্ন প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় ক্যালোরি থেকে অতিরিক্ত ৪০০ থেকে ৫০০ ক্যালোরিযুক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে। অনেকেই এই চিকন স্বাস্থ্য নিয়ে খুব বেশি দুশ্চিন্তায় পড়ে থাকেন। বন্ধুদের মাঝে বিভিন্ন কথা শুনতে হয়। তাই কাল বিলম্ব না করে এই পোস্ট থেকে সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় বিস্তারিত জেনে নিন।

সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায়

যদি খুব অল্প দিনের ভিতরে মোটা হতে চান তাহলে প্রতিদিন আপনার খাবারের তালিকায় অতিরিক্ত ৬০০ থেকে ৭০০ ক্যালোরির খাবার রাখতে হবে। তবে এ সকল খাবার খাওয়ার পাশাপাশি আপনাকে শারীরিক দিক দিয়ে অনেকটা সুস্থতা এবং মানসিক দিক দিয়ে বেশ নজর দিতে হবে। যেমন এই সময় আপনাকে টেনশন মুক্ত থাকতে হবে, এবং পরিমিত ঘুমাতে হবে।

এছাড়াও প্রাকৃতিকভাবে এই খাবার খাওয়া ব্যতীত বিভিন্ন মেডিসিন বা ওষুধ সেবনে আপনি খুব দ্রুত মোটা হতে পারবেন। তবে জেনে রাখা ভালো ওষুধ খেয়ে দ্রুত মোটা হতে গেলে বিভিন্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আপনার শরীরে লক্ষ্য নিয়ে হতে পারে।

যা পরবর্তীতে আপনার মৃত্যুর কারণ পর্যন্ত হতে পারে। তবে চেষ্টা করুন প্রাকৃতিক ভাবে আপনার শরীরের ভিটামিনের ঘাটতি পূরণ করে মোটা হওয়ার। তাই ৭ দিনে কিভাবে মোটা হবেন তার উপায় গুলো নিয়ে আজকে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। অতএব সম্পূর্ণ পোস্ট বিস্তারিত দেখুন।

সাত দিনে মোটা হওয়ার জন্য কি কি খাবার খেতে হবে

এক সপ্তাহে যদি মোটা হতে চান তাহলে খাবারের বিশাল পরিবর্তন আনতে হবে। এবং পুরো এক সপ্তাহ আপনাকে বাড়িতে বসে বিশ্রামে থাকতে হবে। এবং খাবার খাওয়ার পর ক্ষনেই আপনাকে ঘুমাতে হবে। তবে কি কি খাবার খেয়ে আপনি মোটা হবেন তার একটি তালিকা নিচে উল্লেখ করা হয়েছে।

  • ভাজাপোড়া বেশি খেতে পারেন।
  • খারাপ চর্বির যুক্ত খাবার গুলো এড়িয়ে চলুন
  • ভিটামিন জাতীয় সকল খাবার একটু বেশি বেশি খাবেন
  • কলা ,দুধ ঘুমোতে যাওয়ার আগে গ্রহণ করুন
  • প্রতিদিন রাতে এবং সকালে মধু খেতে পারেন।
  • বিভিন্ন ধরনের সংমিশ্রনের খাবার খেতে পারেন।
  • যেমন, দুধ, কলা, খেজুর, তরমুজ ইত্যাদির শরবত খেতে পারেন।
  • দুধের ছানাজাতীয় খাবার বেশি খাবেন
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে কাঁচা ছোলা খেতে পারেন
  • এবং যে কোন খাবার বেশি বেশি এবং বার বারগ্রহণ করুন।
  • বিভিন্ন ধরনের ফল মূল বেশি বেশি গ্রহণ করুন।
  • যেকোনো শাকসবজি আপনার খাবারের তালিকা রাখুন।
  • তবে যে খাবার খান অতিরিক্ত খান।
  • ড্রাই ফ্রুটস খান
  • ঘুমানোর পূর্বে মধু খান এবং দুধ খান।
  • বার্গার পিৎজা ইত্যাদি বাইরে খাবার খেতে পারেন।
  • ডায়েট চকলেট এবং চিজ
  • স্মুদিতে দই, প্রোটিন পাউডার, বাদাম মাখন
  • সয়া দুধ, বাদাম ইত্যাদি বেশি বেশি গ্রহণ করুন।

৭ দিনে মোটা হওয়ার ওষুধের নাম

যদি বিভিন্ন ওষুধ খেয়ে মোটা হতে চান তাহলে একজন ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন। তারপর তার পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ গ্রহণ করুন। তবে শরীরকে মোটা করতে ওষুধ না খাওয়াই উত্তম। আপনি যে ওষুধেই মোটা হওয়ার জন্য গ্রহণ করুন না কেন। তা আপনার শরীরে বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। তবে নিচে কয়েকটি সাত দিনে মোটা হওয়ার ওষুধের নাম উল্লেখ করেছি।

  • Syrup Livwel Syrup
  • Vitalgin Syrup
  • Zovia Gold
  • Cinkara
  • Proviten JR
  • RUCHITON
  • Beconex ZI- Syrup 
  • Practin

মোটা হওয়ার ১০ টি কার্যকরী উপায়

চিকন স্বাস্থ্য নিয়ে প্রায় প্রত্যেকেই চিন্তিত থাকে। বন্ধুদের কাছ থেকে বিভিন্ন ক্ষ্যাপা নামে ডাকছো না। স্বাস্থীনতায় ভোগা, ও পুষ্টিহীনতায় ভোগা। আরো ইত্যাদি খারাপ চোখে দেখে থাকেন এ চিকন স্বাস্থ্য নিয়ে। তবে আপনার চিকন স্বাস্থ্য কে খুব দ্রুতই মোটা করতে পারবেন। তবে জেনে রাখুন শরীরে ওজন বাড়ানো অতটাও সহজ ব্যাপার না।

তবে বেশ কিছু নিয়ম এবং একটি উপায় রয়েছে। যে উপায় গুলো প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত নিখুঁতভাবে পালন করলে আপনি খুব অল্প সময়ের ভিতরে মোটা হতে পারবেন। তাই আজকে নিচে মোটা হওয়ার 10 টি কার্যকরী উপায় সম্পর্কে উল্লেখ করেছি। শুধুমাত্র এই ১০ টি উপায় আপনি যদি অবলম্বন করেন একটি মাস বা এক সপ্তাহ পর্যন্ত। আশা করা যায় আপনার শরীরে অনেকটা পরিবর্তন লক্ষণীয় হবে। 

  • ব্যায়াম সঞ্চালন
  • পর্যাপ্ত ঘুম বা বিশ্রাম
  • প্রোটিন গ্রহণ করুন
  • ওজন উত্তোলন
  • প্রচুর পানি পান করুন
  • খারাপ চর্বি এড়িয়ে চলুন
  • ক্যালোরি খরচ বাড়ান
  • গণনা সাহায্য করে
  • বিছানায় যাওয়ার আগে কিছু দুধ পান করুন

মাত্র সাত দিনের মোটা হওয়ার উপায়

খুব দ্রুত মোটা হতে চাইলে সবার আগে আপনাকে টেনশন মুক্ত থাকতে হবে। এবং আপনার খাবারের তালিকায় দ্রুত মোটা হওয়ার জন্য ড্রাই ফুড রাখতে পারেন। অর্থাৎ প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খেজুর খেতে পারেন এবং কাজুবাদাম খেতে পারেন। তবে চেষ্টা করবেন খুব ভোরে ঘুম থেকে ওঠার। এবং রাতে খুব তাড়াতাড়ি ঘুমানোর চেষ্টা করবেন।

একটি হিসাব অনুযায়ী দেখা গেছে প্রতি ৭৭০০ অতিরিক্ত ক্যালরি=১ কেজি ওজন। আর একজন পুরুষ মানুষের প্রতিদিন প্রতি ২৫০০ ক্যালরির খাবার গ্রহণ করা উচিত এবং নারীদের ২০০০ ক্যালোরি এর মত। অর্থাৎ আপনি যদি প্রতিদিন ৭৭০০ অতিরিক্ত ক্যালরি গ্রহণ করেন। তাহলে মোট আপনি 1 কেজি পরিমাণ ওজন বৃদ্ধি করতে পারবেন আপনার শরীরের।

অর্থাৎ আপনি যদি সাত দিনে মোটা হতে চান এক থেকে দুই কেজি পর্যন্ত। তাহলে আপনাকে প্রতিদিনের ক্যালোরি পূরনের পর অতিরিক্ত ৫০০ থেকে ৬০০ ক্যালোরি যুক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে। তবে আপনার এই অতিরিক্ত ক্যালরি যুক্ত খাবার খাওয়ার সহজ কয়েকটি মাধ্যম হচ্ছে, ডিম তেলে ভাজি করে করে খাওয়া। এবং সাদা ভাত বেশি বেশি খাওয়া। প্রতিদিন কলা খাওয়া, ঘুমানো পূর্বে দুধ খাওয়া এবং মধু খাওয়া আর ইত্যাদি উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার খেতে হবে।

রোগা থেকে মোটা হওয়ার উপায়

যাদের শরীর অনেকটা রোগ, তাদের প্রত্যেককে হয়তো শুটকি নামটি শুনতে হয়েছে। লোকে রোগা পাতলা ব্যক্তিদেরকে শুটকি বলে ক্ষেপিয়ে থাকে। এছাড়াও একজন রোগা পাতলা ব্যক্তিকে শুনতে হয় বাড়িতে মনে হয় ভাত খেতে দেয় না,অপুষ্টিতে ভুগতেছে আরও এরকম কথা। তো অনেকেই রয়েছেন অনেক লম্বা কিন্তু স্বাস্থ্যের দিক দিয়ে অনেকটা চিকন।

তাদের ক্ষেত্রে মাঝেমধ্যে রোগা থেকে মোটা হওয়া বেশ কষ্টসাধকর ব্যাপার হয়ে যায়। তবে বিশ্বাস করেন আপনি যদি আপনার খাবারের অনেক বড় পরিবর্তন আনতে পারেন। তাহলে আপনার চিকন হ্যাংলা পাতলা শরীর খুব দ্রুতই মোটা করতে পারবেন। আর এ থেকে পরিত্রাণ পেতে আপনাকে প্রচুর পরিমাণে খাবার গ্রহণ করতে হবে। এবং খাবার গ্রহণ করার পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণ পানি পান করতে হবে।

অতএব প্রতিদিন এক খাদ্য তালিকায় আপনাকে এ সকল উপাদানের খাবার রাখতে হবে। খাবারগুলো হচ্ছে কার্বোহাইড্রেট বা শর্করা, প্রোটিন জাতীয় খাবার। এবং ভিটামিন, চর্বি, দুধ ও দুধজাতীয় খাবার। যা আপনার খুব দ্রুত শরীরকে মোটা করে দিবে। শেষে খনিজ উপাদান-সমৃদ্ধ ফলমূল রাখুন খাদ্য তালিকায়।

অল্প দিনে ইসলাম অনুযায়ী মোটা হওয়ার উপায়

আপনারা অনেকেই হয়তো জানতে পেরেছেন খালি পেটে সকাল বেলা খেজুরের সাথে শসা খেলে মোটা হওয়া যায়। আর খেজুর এবং শসা একসাথে খাওয়ার সুন্নাহ। যদি কোন ব্যক্তি তাওয়াক্কুলের সাথে শসা এবং খেজুর প্রতিদিন সকালে খেয়ে থাকে। আশা করা যায় সে অবশ্যই মোটা হবেন। তবে কতদিনের মোটা হবেন তা নিশ্চিত করে বলা অসম্ভব।

সকালে খালি পেটে কি খেলে মোটা হওয়া যায়

হাদিস অনুযায়ী ইসলামের মোটা হওয়ার একটি পদ্ধতির মধ্যে উল্লেখিত সকালে খালি পেটে শসা এবং খেজুর খেলে মোটা হওয়া যায়। প্রতিদিন সকালবেলা নিয়ম করে ভাজাপোড়া যুক্ত খাবার খেতে পারেন। এসব খাবারগুলো শরীরের জন্য ক্ষতিকর। তবে শরীরে চর্বি বৃদ্ধির জন্য অনেকটা সহায়ক।

এছাড়া ঘুম থেকে উঠেই এক গ্লাস দুধ খেতে পারেন। এবং সাথে মধু খেতে পারেন। এসব খাবারগুলো উচ্চ প্রোটিন, যা আপনার শরীরকে খুব দ্রুত মোটা করতে সাহায্য করে। এবং দুই থেকে তিনটি কলা খেতে পারেন। এবং কলা খাওয়ার আগে এবং পরে পরিমিত পরিমাণ ব্যায়াম করতে পারেন। এছাড়াও সাথে সিদ্ধ ডিম তো রয়েছে।

সাত দিনে মোটা হওয়ার খাদ্য তালিকা

যদি ৭ দিনে মোটা হতে চান তাহলে ক্ষতি দিনের প্রতিবেলার খাবারের রুটিন করে নিন। এবং প্রতিদিন একই সময়ে একই খাবার গ্রহণ করুন অতিরিক্ত পরিমাণে। অর্থাৎ সাত দিনের মোটা হওয়ার একটি খাদ্য তালিকা নিচে উল্লেখ করা হয়েছে। আশা করা যায় এই খাদ্য তালিকা আপনার অনেকটা উপকারে আসবে।

সকালের খাবারঃ

খুব দ্রুত এবং সাত দিনে ওজন বাড়ানোর জন্য সকালের নাস্তায় যে খাবারগুলো যুক্ত করতে পারেন, তার মধ্যে রয়েছে দুধ, কলা, ডিম ও খেজুর। দুধের মধ্যে প্রয়োজনীয় সকল ধরনের পুষ্টি উপাদান পাওয়া যায়। তাই প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর পূর্বে এক গ্লাস দুধ খেয়ে নিন। এবং সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এক গ্লাস দুধ খেয়ে নিন। এছাড়াও এই দুধের মধ্যে রয়েছে প্রচুর ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন বি১২।

যা দাত এবং হার শক্ত করতে সহায়তা করে। এবং রক্তস্বল্পতা দূর করে থাকে। এবং কলাতে রয়েছে ভিটামিন বি৬,যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলে। আর আমরা হয়তো জানি ডিমকে মাল্টিমিটামন বলা হয়। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে এতে প্রায় ভিটামিন এবং মিনারেল থাকে। যা আমাদের দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

দুপুরের খাবারঃ

আপনার দুপুরের খাবারে ডাল, গরুর মাংস,খাসির মাংস,মুরগির মাংস ইত্যাদি রাখতে পারেন। আর এসব খাবারগুলোতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন পাওয়া যায়। যা আপনার মোটা হতে দ্রুত সাহায্য করে। এছাড়াও দুপুরের খাবারে আপনি টক দই খেতে পারেন।

রাতের খাবারঃ

ঠিক একইভাবে দুপুরের খাবারগুলো আপনি রাতে খেতে পারেন। মুরগি মাংস,মাছ, গরুর মাংস, খাসির মাংস, এবং রাতে ঘুমানোর পূর্বে আর দুধ এবং মধু খেতে পারেন। তবে অবশ্যই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় এসব খাবার গুলো রাখবেন। যাতে আপনি খুব দ্রুত মোটা হতে পারেন। 

সাত দিনে মোটা হওয়ার ঘরোয়া উপায়

আপনি কিভাবে ঘরোয়া উপায়ে ৭ দিনের মধ্যে মোটা হবেন তার কয়েকটি ট্রিক্স এবং উপায় নিচে উল্লেখ করা হয়েছে। বিভিন্ন ওষুধ গ্রহণ করে মোটা হওয়ার থেকে প্রাকৃতিকভাবে ঘরোয়া উপায়ে মোটা হওয়া সবথেকে উত্তম। ওষুধ খেলে বিভিন্ন শরীরের বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়ে থাকে। ৭ দিনে মোটা হওয়ার ঘরোয়া উপায় গুলো হলো।

  • প্রতিদিন রাতে ঘুমানো পূর্বে এক গ্লাস দুধ খান।
  • রাতে ঘুমানোর পূর্বে মধু খান।
  • সাথে কলা দুধ খেজুরের একসাথে ব্লেন্ডারে মিশ্রণ করে খেতে পারেন।
  • প্রতিদিনের খাবার তালিকায় পুষ্টি যুক্ত খাবার গ্রহণ করুন।
  • যেমন বিভিন্ন ধরনের শাকসবজি গ্রহণ করুন।
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে শসা আর খেজুর খান।
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে পরিমিত পরিমাণ হালকা ব্যায়াম করুন।
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে কলা খেতে পারেন এবং দুধ খেতে পারেন।
  • এবং খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠে নামাজ পড়ে দুটি কলা খেয়ে হালকা ব্যায়াম করুন।

শেষ কথা

নিজের চিকন স্বাস্থ্য কে মোটা করতে কি কি উপায় অবলম্বন করা যায় তার সবগুলো উপায় এখানে ইতিমধ্যে উল্লেখ করা হয়েছে। আশা করতেছি এই পোস্ট থেকে আপনাদের কাঙ্খিত তথ্য পেয়ে গিয়েছেন। তাই সাত দিনে মোটা হওয়ার উপায় আপনি যদি এই পোস্ট থেকে বিস্তারিত জেনে থাকেন এবং উপকৃত হয়ে থাকেন। তাহলে অবশ্যই আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে এই পোস্ট শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment