অনলাইনে ভিসা চেক করার উপায় ২০২৪

একবার ভিসা হাতে পেয়ে গেলে খুব সহজেই অনলাইনে মাধ্যমে ভিসা চেক করা যায়। আপনার যেকোনো দেশের ভিসা আপনি অনলাইনে মাধ্যমে খুব সহজেই চেক করে নিতে পারবেন। এতে বাড়তি কোন চিন্তা নেওয়ার প্রয়োজন নেই। আপনি যে দেশের ভিসা অনলাইনে চেক করতে চাচ্ছেন,শুধুমাত্র ওই দেশের নাম লিখে সাথে ভিসা চেক লিখে গুগলে অনুসন্ধান করুন।

প্রথমে যে ওয়েবসাইট বা লিংক দেখতে পারবেন সে লিংক বা ওয়েবসাইটে প্রবেশ। প্রবেশ করার পর আপনার যে দেশের ভিসা তৈরি করছেন সেই দেশের ভিসার নম্বর এবং পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে খুব সহজেই অনলাইনে ভিসা চেক করে নিন। তবে যাদের জন্য এই প্রক্রিয়ার সহজ মনে হচ্ছে তারা এই পোস্ট থেকে অনলাইনে ভিসা চেক করার উপায় গুলো বিস্তারিত জেনে নিন।

অনলাইনে ভিসা চেক করার উপায়

আমরা অনলাইনে যেমন নিজে নিজে ভিসা আবেদন করতে পারি তেমনি আবেদন শেষে আমরা বিভিন্ন কাগজপত্র হাতে নেওয়ার পর নিজে নিজেই ভিসা চেক করে নিতে পারি। তো বেশিরভাগ মানুষই এই সকল প্রক্রিয়া নিজে নিজে করতে জানে না। যেমন অনলাইনের মাধ্যমে নিজে নিজেই ভিসা চেক করার প্রক্রিয়া প্রায় মানুষই জানেনা। অথচ একটু প্রচেষ্টা করলেই অনলাইনের মাধ্যমে ভিসা চেক করা যায়। কারোর প্রয়োজন হয় না।

যদি অনলাইনে মাধ্যমে নিজে নিজেই ভিসা চেক করতে চান সে ক্ষেত্রে আপনার একটি মোবাইল ফোন অথবা ল্যাপটপ কম্পিউটার হলে চলবে। অর্থাৎ আপনাকে ইন্টারনেট ব্রাউজ করার জন্য অবশ্যই একটি ডিভাইস লাগবে। সেক্ষেত্রে সবথেকে সুবিধা জনক ডিভাইস হচ্ছে মোবাইল। আপনি মোবাইল থেকে আমাদের এই প্রক্রিয়া প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত অনুসরণ করতে পারেন। তবে যেন এখন প্রত্যেকটি দেশের ভিসা চেক করার জন্য আলাদা আলাদা ওয়েবসাইট লিংক রয়েছে। 

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করার নিয়ম

অনলাইনে ভিসার জন্য আবেদন করতে হলে অবশ্যই আপনার পাসপোর্ট নাম্বার এর প্রয়োজন হবে। আপনার কাছে যদি বৈধ পাসপোর্ট না থাকে তাহলে কখনোই আপনি ভিসা তৈরি করতে পারবেন না। সে ক্ষেত্রে ভিসা তৈরি হওয়ার পর আপনি খুব সহজেই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়েও আবার ভিসা চেক করে নিতে পারবেন।

হয়তো এই প্রক্রিয়া অনেকের কাছে অজানা, কিন্তু আমাদের এই পোস্টে খুব সহজে ভিসা চেক করার প্রক্রিয়াগুলো উল্লেখ করা হয়েছে। ধরুন আপনি আপনার পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে দুবাইয়ের ভিসা চেক করতে চাচ্ছেন।

তাহলে আপনাকে অবশ্যই দুবাইয়ের ভিসা চেক করার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। প্রবেশ করার পর আপনার যে পাসপোর্ট নাম্বার রয়েছে। পাসপোর্ট নাম্বার দেওয়ার অপশনে ক্লিক করে পাসপোর্ট নাম্বার বসিয়ে ‍দিন। তারপর আপনার দেশ নির্বাচন করুন।

কিছু কিছু জায়গায় ভিসার একটি নম্বর থাকে, তো সেই নম্বর দেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে। সে ক্ষেত্রে আপনার হাতে যে ভিসা রয়েছে, সেখান থেকে ভিসা নাম্বার সংগ্রহ করুন। তারপর পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করলেই আপনার ভিসার সম্পর্কিত সকল তথ্য দেখতে পারবেন। অর্থাৎ জানতে পারবেন আপনার ভিসা সম্পন্ন হয়েছে কিনা।

ভিসা যাচাই করতে যা যা প্রয়োজন হয়

আপনার তৈরি কৃত ভিসা যাচাই করতে বেশি কিছু ডকুমেন্ট এর প্রয়োজন হয় না। যেহেতু আপনি কোন মাধ্যম থেকে ভিসা তৈরি করে ফেলেছেন। সে ক্ষেত্রে আপনার কাছে হয়তো একটি ভিসা রয়েছে। ভিসায় একটি ভিসার নাম্বার রয়েছে,অতএব আপনার সেই ভিসা থেকে ভিসা নাম্বার সংগ্রহ করুন। কেননা ভিসা চেক করতে ভিসার নাম্বার প্রয়োজন হতে পারে।

এরপর সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ ও তথ্য হচ্ছে পাসপোর্ট নাম্বার। অর্থাৎ পাসপোর্ট নাম্বার দিয়েও আপনি ভিসা তৈরি করতে পারেন। এবং এই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে আবার ভিসা যাচাই করতে পারেন। অর্থাৎ এই দুটি তথ্য হলেই আপনার ভিসা যাচাই করতে পারবেন।

  • প্রথমত আপনার ভিসার নাম্বার আমার প্রয়োজন হতে পারে।
  • দ্বিতীয়ত আপনার পাসপোর্ট নাম্বার প্রয়োজন হবে।
  • অনেক সময় যে কোম্পানির ভিসা তৈরি করছেন সে কোম্পানির কিছু নম্বর থাকে। সেই নম্বরের প্রয়োজন হয় ভিসা চেক করার ক্ষেত্রে।

আপনার ভিসা চেক করুন অনলাইনে

ইতিমধ্যে হয়তো ভিসা চেক করার সংক্ষিপ্ত আলোচনায় জানতে পেরেছেন। কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে  ভিসা চেক করা হয় তা আজকের পোস্ট থেকে বিস্তারিত জানতে পারবেন। আপনি বাংলাদেশ থেকে বিশ্বের যেকোনো দেশের ভিসা হয়েছে কিনা এবং ভিসার সত্যতা অনলাইনে ঘরে বসে করে নিতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে কয়েকটি ধাপ আপনাকে অনুসরণ করতে হতে পারে।

আপনি চাইলে কাতারের ভিসা বাংলাদেশ থেকে বসে চেক করে নিতে পারবেন। আবার দুবাইয়ের ভিসা চাইলেও চেক করে নিতে পারবেন। এক্ষেত্রে যে কোন দেশের ভিসা চেক করতে হলে তাদের দেশের নিজস্ব অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। তারপর আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য তাদের চাওয়া মাত্র সেখানে প্রদান করতে হবে। অতএব মামলা খালাস,সকল তথ্য দেওয়ার পরেই আপনি আপনার বিষয় সম্পর্কিত ব্যক্তিগত তথ্য দেখতে পারবেন।

ঘরে বসে অনলাইনে ভিসা চেক করার উপায়

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে এবং ভিসা নম্বর দিয়ে অনলাইনে ভিসা চেক করার সুযোগ রয়েছে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ভিসা নম্বর দিয়ে চেক করার সুযোগ থাকে না বলেই চলে। তবে আপনারা যদি পাসপোর্ট নাম্বার থাকে তাহলে আপনি যেকোনো দেশের জন্য তৈরিকৃত ভিসা খুব সহজে চেক করতে পারবেন। অনেকে ভিসা চেক করার জন্য বিভিন্ন কম্পিউটারের দোকানে চলে যান।

আবার অনেকেই রয়েছেন যারা ভিসা চেক করার জন্য বিভিন্ন মানুষের কাছে পৌঁছে যান। তবে তবে আপনার কাছে পাসপোর্ট নাম্বার আর ভিসা হাতে থাকলে কোন জায়গায় যাওয়ার দরকার নেই। আপনি যেহেতু এই পোস্ট পড়তেছেন। সেহেতু আপনার কাছে একটি স্মার্টফোন রয়েছে। অতএব আপনি এই স্মার্টফোন দিয়েই ঘরে বসেই অনলাইনে ভিসা চেক করতে পারবেন।

সৌদি আরব ভিসা চেক অনলাইন বাংলাদেশ

যদি সৌদি আরবের ভিসা চেক করতে চান তাহলে অবশ্যই সৌদি আরবের ভিসা চেক করার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে আপনাকে প্রবেশ করতে হবে। সৌদি আরবের ভিসা চেক করার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের লিংক হচ্ছে https://visa.mofa.gov.sa/VisaPerson/GetApplicantData. তাই ইতিমধ্যে যারা সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য ভিসা তৈরি করেছেন। তারা অবশ্যই এই লিংকে প্রবেশ করে আপনার সৌদি আরবের ভিসা চেক করুন তাড়াতাড়ি।

ঘরে বসে ইতালি ভিসা চেক করার উপায়

ভিসা চেক করার বিভিন্ন ওয়েবসাইট রয়েছে, অর্থাৎ এক একটি দেশের জন্য এক একটি ওয়েবসাইট নির্ধারিত। যেমন আপনি যদি সৌদি আরবের ভিসা চেক করতে চান তাহলে অন্য এক অফিসিয়াল সাইটে প্রবেশ করতে হবে। আমরা যদি কাতারের ভিসা চেক করতে চান তাহলে আপনাকে অন্য ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে।

অতএব যারা ঘরে বসে ইতালি ভিসার চেক করার জন্য অনলাইনে এসেছেন তারা এই visa.vfsglobal.com/bgd/en/ita/ লিংকে প্রবেশ করুন। প্রবেশ করার পর আপনি আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য এখানে উল্লেখ করে আপনার ভিসা চেক করুন। তবে অবশ্যই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে আপনার ভিসা চেক করে নিতে হবে। আপনাদের সহজে বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য নিচে ধাপ আকারে উল্লেখ করা হলোঃ

ইতালি ভিসা চেক ওয়েবসাইটে প্রবেশঃ

তাহলে দেখে নিন ঘরে বসে ইতালির ভিসা চেক করার সম্পূর্ণ নিয়ম। আশা করা যায় ইতালির ভিসা চেক করার এই নিয়মগুলো আপনার অনেক অনেক উপকারে আসবে। অর্থাৎ আপনার কাছে ইতালির ভিসা চেক করার কঠিন মনে হলে নিচের ধাপগুলো সহজে অনুসরণ করুন।

ইতালি ভিসা চেক করার জন্য সর্বপ্রথম এই https://visa.vfsglobal.com/ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। তবে অবশ্যই আপনার ইতালি ভিসা চেক করার জন্য কয়েকটি প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট লাগবে। উল্লেখিত ডকুমেন্টগুলো হচ্ছে ভিসা রেফারেন্স নাম্বার (Visa Reference Number) ও ভিসা অ্যাপ্লিকেশন ও পাসপোর্ট অনুযায়ী আপনার নামের শেষ অংশ (Last name)।

ট্রাক ইউর এপ্লিকেশন অপশনে যানঃ

উপরের উল্লেখিত ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর এ ধাপে নিচের দেওয়া ছবিটি লক্ষ্য করুন। অতএব পরবর্তীতে (Track Your Application) অপশনের ট্রাক নাও (Track Now) লেখাতে ক্লিক করে পরবর্তী পেইজে যান।

ভিসার তথ্য প্রদানঃ

এ ধাপ অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ এ ধাপে আপনার পাসপোর্ট নাম্বার লাগবে এবং ভিসার জন্য রেফারেন্স নাম্বার লাগবে। তারপর আপনার পাসপোর্ট নাম্বার এবং ভিসা অ্যাপ্লিকেশন এর তথ্য অনুযায়ী আপনার নামের শেষের অংশ লিখুন। তারপর হিউম্যান ভেরিফিকেশনের জন্য আই এম নট রোবট লেখার পাশে চেকবক্সে ক্লিক করে ক্যাপচা পূরণ করুন। সর্বশেষ আপনি সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন। আশা করা যায় আপনার ভিসা চেক করতে পেরেছেন।

অনলাইনে ভিসা চেক করার সুবিধা

অনলাইনের মাধ্যমে ভিসা চেক করার অনেক সুবিধা রয়েছে। বর্তমানে বহু প্রতারক এবং দালাল চক্র করেছেন, যারা সাধারণ মানুষদেরকে ভুয়া ভিসা দিয়ে থাকেন। এজন্য অনলাইনের মাধ্যমে নিজে নিজেই ভিসা চেক করা সব থেকে সুবিধার একটি বিষয়। এজন্য কোন কম্পিউটার অপারেটরের দোকানে আপনাকে যেতে হচ্ছে না। অর্থাৎ নিজে নিজেই আপনি বাড়িতে বসে মোবাইল দিয়ে করতে পারছেন।

এছাড়া আর একটি সুবিধা হচ্ছে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে ভিসা চেক করার ফলে আপনার জন্য কোন ভিসা এবং কোন কাজ নির্ধারিত সেটি জানতে পারবেন। এবং কোন কোম্পানিতে চাকরি করতে যাচ্ছেন সেটিও আপনি এই ভিসা চেক করার মাধ্যমে জানতে পারবেন। সর্বোপরি আপনার ভিসা সম্পন্ন হয়েছে কিনা সে বিষয়টি জানতে পারবেন। 

ভিসা নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক

যেকোনো ভিসা চেক করার ফলে, কোম্পানির নাম আপনার কাজের ধরন এবং সম্পূর্ণ ভিসা হয়েছে কিনা তা জানা যায়। যদি ভিসা নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করতে চান। তাহলে আপনাকে যে দেশের ভিসা চেক করতে চাচ্ছেন সে দেশের ভিসা চেক করা অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। তারপর পাসপোর্ট নাম্বার সহ ভিসা নাম্বার সেখানে প্রদান করতে হবে। অতঃপর ভিসা তৈরি হলে আপনি সেখানে ভিসা সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য দেখতে পারবেন।

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা চেক করার উপায়

যদি পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়ার ভিসা চেক করতে চান তাহলে এই https://eservices.imi.gov.my/myimms/FomemaStatus/lang?=eng লিংকে প্রবেশ করুন। একমাত্র এই লিংকে প্রবেশ করেই আপনি মালয়েশিয়ার ভিসা চেক করতে পারবেন। অতএব এ লিংকে প্রবেশ করার পর কয়েকটি তথ্য আপনাকে প্রদান করতে হবে। যেমন পাসপোর্ট নাম্বার (Passport No) এবং সিটিজেনশিপ (Citizen)। না হয় আপনার নাম দিতে হবে এবং সিটিজেনশিপ দিতে হবে।

অতএব আপনার সকল তথ্য সঠিক হলে আপনি আপনার স্ট্যাটাস দেখতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার বিষয় সম্পর্কিত সকল তথ্য সেখানে দেখতে পারবেন। যদি আপনার ভিসা তৈরি হয়ে থাকে। আশা করা যায় আপনি পাসপোর্ট নাম্বারটি মালয়েশিয়ার ভিসা খুব সহজেই পরবর্তীতে চেক করতে পারবেন।

ভিসা চেক করার প্রয়োজনীয়তা

অনলাইনে মাধ্যমে ভিসা চেক করার অনেক প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। আপনার ভিসার জাল কিনা বা আপনার দালাল আপনার সাথে জালিয়াতি করছে কিনা সেটি বুঝার জন্য ভিসা চেক করা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এবং আপনি কোন কোম্পানির অধীনে চাকরি করতে যাচ্ছেন সে বিষয়টিও জানতে পারবেন। অর্থাৎ ভিসা চেক করার অনেক প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

ভিসা চেক কেন করবেন

আপনি যদি অনলাইনে বা গুগলে Visa Check লিখে সার্চ করে থাকেন তাহলে ভিসা চেক করার বিভিন্ন ওয়েবসাইট আপনি দেখতে পাবেন। তবে ভিসা  কেন চেক করবেন? বাংলাদেশের বহু প্রতারক এবং দালাল চক্র রয়েছেন। যারা মানুষদেরকে ভুয়া ভিসা দিয়ে ঠকিয়ে থাকেন এবং অনেক টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নিয়ে থাকেন।

তাই আপনি যখনই আপনার ভিসা হাতে পাবেন, ঠিক তখনই আপনার মোবাইলে ভিসা চেক লিখে সার্চ করে আপনার ভিসার তৎক্ষণাৎ চেক করে নিন। যদি আপনার ভিসা সঠিক হয়ে থাকে তাহলে সার্চ করার সাথে সাথে আপনার সকল ব্যক্তিগত তথ্য আপনি দেখতে পারবেন। আর যদি ভিসা না করা থাকে তাহলে সেখানে আপনার ভিসা সম্পর্কিত কোন তথ্য আসবে না। এজন্যই ভিসা চেক করা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

শেষ কথা

কিভাবে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে অথবা ভিসা নাম্বার দিয়ে যেকোনো দেশের ভিসা চেক করা যায় তার বিস্তারিত আলোচনা আজকের এই পোস্টে করা হয়েছে। আশা করছি ইতিমধ্যে আপনার সম্পূর্ণ পোস্ট পড়ে নিয়েছেন, এবং ইতিমধ্যে আপনার ভিসা চেক করা হয়ে গিয়েছে। যদি এই পোস্ট আপনার কাছে উপকৃত মনে হয়ে থাকে। তাহলে অবশ্যই আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদের কে শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment