পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করার উপায় ২০২৪

কোনরকম কারো সহায়তা ছাড়া আপনি অনলাইনে নিজে নিজে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করতে পারবেন। এ প্রক্রিয়া অনেক সহজ, এর জন্য নির্দিষ্ট একই ওয়েবসাইট আপনাকে প্রবেশ করতে হবে। আর প্রত্যেক ব্যক্তির পাসপোর্ট চেক করা উচিত। কেননা বর্তমানে দালাল চক্রদের মুথে পড়ে অনেকেই নকল পাসপোর্ট পেয়ে থাকেন। 

যেখানে পরবর্তীতে এই পাসপোর্ট চেক না করার কারণে ভিসা সম্পন্ন করা যায় না। তাই কিভাবে আপনি আপনার পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করবেন তার বিস্তারিত একটি আলোচনা এখানে করা হয়েছে। সৌদি আরব, কুয়েত, ওমান, মালয়েশিয়া, দুবাই এবং ইন্ডিয়ান ভিসার চেক করতে এই পোস্ট প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত দেখুন।

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক

ইন্টারনেটের মাধ্যমে এখন প্রায় সকল দেশের পাসপোর্ট নাম্বার চেক করা যায়। আপনি যদি সৌদি আরবের যাওয়ার জন্য পাসপোর্ট করে থাকেন এবং সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য আপনার পাসপোর্ট প্রস্তুত হয়েছে কিনা তা খুব সহজেই জানতে পারবেন।

পাসপোর্ট নাম্বার অনেক গুরুত্বপূর্ণ, হাজার হাজার মানুষ বাংলাদেশ থেকে প্রতিনিয়ত এই পাসপোর্ট এর মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে পাড়ি জমাচ্ছে। আবার এই পাসপোর্ট ব্যবহার করেই বিভিন্ন দেশ থেকে নিজ দেশে ফিরে আসছে। তাই এ পাসপোর্ট নাম্বার অনেক গুরুত্বপূর্ণ একজন প্রবাসী ভাইয়ের জন্য। তাই কিভাবে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে আপনার ভিসা চেক করবেন তা বিস্তারিত নিচে প্রবেশ করে জেনে নিন।

ভিসা চেক করতে কি কি লাগে

ভিসা চেক করতে বেশ কিছু প্রয়োজনীয় কাগজ লাগে। অর্থাৎ কয়েকটি তথ্য থাকলে আপনি বিশ্বের যে কোন ভিসা খুব সহজেই অনলাইনে মাধ্যমে চেক করতে পারবেন। এর জন্য আপনার কাছে পাসপোর্ট এর একটি নাম্বার থাকতে হবে।

এছাড়াও এপ্রুভ ভিসার নম্বর থাকতে হবে। এই দুটি তথ্য থাকলে আপনি পৃথিবীর যেকোনো নির্দিষ্ট ভিসা চেক করার ওয়েব সাইটে প্রবেশ করে ভিসা চেক করতে পারবেন এবং পাসপোর্ট নাম্বার চেক করতে পারবেন।

মালয়েশিয়া পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক

যারা বর্তমানে মালয়েশিয়ার জন্য ভিসা তৈরি করেছেন। তাদের অবশ্যই এই ভিসা চেক করা উচিত। কেননা বর্তমানে প্রতারক চক্রের দ্বারা হয়তো অনেক মানুষ প্রতারিত হচ্ছে। যাদেরকে ফেক ভিসা প্রদান করে প্রতারিত করা হয়। এমনকি ভিসা তৈরীর সময় অনেক টাকা হাতিয়ে দিয়ে থাকে।  অতঃপর কিভাবে মালয়েশিয়ার জন্য তৈরি করা ভিসা পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে চেক করবেন তার নিচে জেনে নিন।

অনলাইনে মালয়েশিয়া ভিসা চেক করার জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য

বর্তমানে তিনটি উপায়ে মালয়েশিয়ার ভিসা চেক করা যায় এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ভিসা এপ্লিকেশন বা রেফারেন্স নম্বর,কোম্পানী রেজিস্ট্রেশন নম্বর,পাসপোর্ট নম্বর। আজকে শুধুমাত্র পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা চেক করার প্রক্রিয়া দেখিয়ে দিব। আর এই ভিসা চেক করার জন্য আপনার ভিসা ফরম নম্বর অথবা পাসপোর্ট নাম্বার হলেই চেক করতে পারবেন।

ধাপ ১: মালয়েশিয়া ভিসা চেক ওয়েবসাইটে প্রবেশ

মালয়েশিয়া ভিসা চেক করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে মালয়েশিয়া ভিসা চেক করার অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। ভিসা চেক করার মালয়েশিয়ার ওয়েবসাইটটি হচ্ছে https://eservices.imi.gov.my/myimms/FomemaStatus অতএব দ্বিতীয় ধাপে প্রবেশ করুন।

ধাপ ২: পাসপোর্টের তথ্য প্রদান

তারপর উপরে ধাপে ছবিটি লক্ষ্য করুন , সেখানে কয়েকটি ফাঁকা স্থান রয়েছে। যে স্থানগুলোকে সঠিকভাবে আপনাকে পূরণ করতে হবে।  যেমন No Passport ফাঁকা ঘরে আপনাকে আপনার সঠিক পাসপোর্ট নাম্বার প্রদান করতে হবে। Warganegara/Country এ জায়গায় আপনাকে আপনার দেশ নির্বাচন করতে হবে।

ধাপ ৩: মালয়েশিয়া ভিসার স্ট্যাটাস

সর্বশেষ ধাপে আপনার নাম ইত্যাদি ভালোভাবে পূরণ করতে হবে। এরপর ডান পাশে আপনাকে Carian বাটনে ক্লিক করলে আপনার ভিসা স্ট্যাটাস দেখতে পাবেন। অতঃপর আপনার ভিসা নাম্বার বা পাসপোর্ট নাম্বার যদি সঠিক হয়ে থাকে। তাহলে আপনার তথ্য বা ভিসার স্ট্যাটাস দেখতে পারবেন।

কুয়েত পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক

দক্ষিণে সৌদি আরব ও উত্তরে ইরাক বেষ্টিত। এই দেশের রাজধানীর নাম কুয়েত শহর। এবং আপনি যদি কুয়েতের জন্য ভিসা তৈরি করে থাকেন তাহলে আপনার পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে সে ভিসা চেক করে নিন। কেননা প্রত্যেক দেশের ভিসা তৈরির পর অবশ্যই চেক করা উচিত। আর কিভাবে চেক করবেন তা নিচে দেখে নিন।

ধাপ ১: কুয়েত ভিসা চেক ওয়েবসাইটে প্রবেশ

কুয়েতের ভিসা চেক করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে এই https://evisa.moi.gov.kw/evisa/home_e.do ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। এরপর দ্বিতীয় ধাপে প্রবেশ করুন।

ধাপ ২: ভিসা অ্যাপ্লিকেশন স্ট্যাটাস অপশনে যান

উপরের লিংকে প্রবেশ করার পর বাম পাশে ইনকোয়ারি টুরিস্ট এ বিষয়ে স্ট্যাটাস নামের অপশনে ক্লিক করুন। এই অ্যাপস না ক্লিক করার পর নিচের ধাপ অনুসরণ করুন ।

ধাপ ৩: ভিসার তথ্য প্রদান

এরপর আপনার কাছে থাকা e-Visa Reference Number এবং আপনার সেই  passport নাম্বার সেখানে বসাতে হবে। আপনাদের সহজে বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য নিচের ছবি উল্লেখ করা হয়েছে। সকল তথ্য দেওয়ার পর নিচে ওকে বাটনে ক্লিক করুন। ওকে বাটনে ক্লিক করার পর আপনি আপনার ভিসার তথ্য দেখতে পারবেন। যদি সেখানে কোন তথ্য না আসে তাহলে বুঝবেন আপনার ভিসা সম্পন্ন হয়নি।

ওমান পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক

আর যদি ওমানের ভিসা চেক করতে চান তাহলে Visa Application Number এবং Travel Document Number (Passport Number)  প্রয়োজন হবে। অতএব নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করুন।

ধাপ ১: ওমান ই-ভিসা ওয়েবসাইটে প্রবেশ

তো ভিসা চেক করার জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম এই https://evisa.rop.gov.om/  ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। এই ওয়েবসাইট হচ্ছে ওমান ভিসা চেক করার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট। আপনি চাইলে খুব সহজেই নিচে দেওয়া প্রতিনিয়র অবলম্বন করে আপনার ওমান ভিসা চেক করতে পারবেন।

ধাপ ২: ট্র্যাক ইউর এপ্লিকেশন অপশনে যান

প্রথম ধাপে উপরের দেওয়া লিংকে প্রবেশ করার পর ট্রাক ইওর অ্যাপ্লিকেশন অপসনের প্রবেশ করুন। প্রবেশ করার পর আপনাকে Visa Application Number প্রদান করতে হবে। এরপর সঠিকভাবে Travel Document Number সেখানে প্রদান করতে হবে।

ধাপ ৩: ভিসার তথ্য প্রদান

এই ধাপে আপনি সেখানে উল্লেখিত বিভিন্ন তথ্য প্রদান করুন। যেমন ভিসা অ্যাপ্লিকেশন নাম্বার, ট্রাভেল ডকুমেন্ট নাম্বার, আপনি কোন দেশ থেকে এটি চেক করছেন সেই দেশ নির্বাচন করুন। অথবা সেখানে একটি ক্যাপচা রয়েছে সেই ক্যাপচা সঠিকভাবে লিখুন। সর্বশেষ সার্চ বাটনে ক্লিক করুন।

যদি আপনার ভিসা সম্পন্ন হয়ে থাকে তাহলে সেখানে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো দেখতে পারবেন। আর যদি আপনার ভিসার সম্পূর্ণ না হয় তাহলে বুঝবেন আপনার বিষয়ে এখন পর্যন্ত সম্পন্ন হয়নি বা প্রস্তুত হয়নি।

সৌদি আরব পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক

আপনি না আপনার পাসপোর্ট নাম্বার দেখতে খুব সহজে সৌদি আরবের ভিসা চেক করতে পারবেন। বাংলাদেশ থেকে বহুসংখ্যক মানুষ সৌদি আরবের প্রতিবছর পৌঁছে থাকে। উন্নত জীবন যাপনের উদ্দেশ্যে প্রবাস জীবন কাটানো সৌদি আরবে বাংলাদেশের বহু নাগরিক বর্তমানে বসবাস করছেন।

সৌদি আরব বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি দেশ। যেহেতু আপনি সৌদি আরবের ভিসা তৈরি করেছেন, সেহেতু এ ভিসা হয়েছে কিনা তা চেক করা উচিত। এজন্য আপনাকে নির্দিষ্ট একটি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। তবে কিভাবে আপনি সৌদি আরবের ভিসা চেক করবেন পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে তার বিস্তারিত প্রক্রিয়ায় নিচে উল্লেখ করা হয়েছে। তাই প্রক্রিয়াটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত বিস্তারিত দেখুন।

ধাপ-১: সৌদি ভিসা চেক করার ওয়েবসাইটে প্রবেশ

সর্ব প্রথম ধাপে আপনাকে সৌদি ভিসা চেক করার জন্য এই https://visa.mofa.gov.sa/VisaPerson/GetApplicantData সাইটে প্রবেশ করতে হবে। আর এই সাইটে প্রকাশ করলে আপনি আরবি ভাষাতে সকল তথ্যগুলো দেখতে পারবেন। তাই ইংরেজি করার জন্য E তে সিলেক্ট করুন। এরপর দ্বিতীয় ধাপ লক্ষ্য করুন।

ধাপ-২: ভিসা সম্পর্কিত তথ্য দিন

এই ধাপে আপনাকে ভিসা সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্য দিতে হবে। যেমন নিচের ছবিটি লক্ষ্য করুন, সেখানে পাসপোর্ট নাম্বার, আপনি কোন দেশে বসবাস করেন এবং কি ধরনের ভিসা, সর্বশেষ একটি ক্যাপচা পূরণ করতে হবে। সঠিকভাবে দেওয়ার পরে আপনি সার্চ বাটনে ক্লিক করলেই আপনার প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে।

অতএব উপরে ছবিতে প্রথম ফাঁকা বক্সে আপনার Passport Number দিতে হবে। তারপর

ধাপ-৩: সৌদি ভিসা স্ট্যাটাস

উপরের ধাপে সকল তথ্য দেওয়ার পর সার্চ বাটনে ক্লিক করলে আপনি আপনার সৌদি ভিসা কোন স্ট্যাটাসে রয়েছে তা জানতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার ভিসা যদি সম্পন্ন হয়ে থাকে তাহলে সেখানে আপনি আপনার তথ্য দেখতে পারবেন। আর যদি কোন ভিসা তৈরি হয় বা প্রস্তুত না হয়ে থাকে তাহলে সেখানে আপনার কোন তথ্যই দেখাবে না।

দুবাই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক

দুবাই আরব আমিরাতের একটি শহর, খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি শহর এবং রাজধানী বলা চলে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে এই দুবাইয়ে বর্তমানে মানুষ বসবাস করছেন। তো এ দেশে যাওয়ার পূর্বে অবশ্যই প্রত্যেক ব্যক্তির একটি ভিসা তৈরি করতে হয়। আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে দুবাই পৌঁছতে চান সে ক্ষেত্রেও আপনাকে একটি ভিসা তৈরি করতে হবে।

অতএব ভিসা তৈরি করার পর প্রত্যেক ব্যক্তির ভিসা চেক করা উচিত। তো ভিসা চেক করার ক্ষেত্রে খুব সহজ একটি মাধ্যম রয়েছে। সে মাধ্যমটি হচ্ছে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করা। তবে এ পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক করতে হলে কয়েকটি উপায় আপনাকে অবলম্বন করতে হবে। যে উপায়গুলো ইতিমধ্যে আপনাদের সহজে বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য নিচে উল্লেখ করা হয়েছে।

ধাপ ১: দুবাই ভিসা চেকিং ওয়েবসাইটে প্রবেশ

এ ভিসা চেক করার পূর্বে আপনাকে একটি সাইটে প্রবেশ করতে হবে। অতএব ভিসা চেক করার জন্য এই https://smartservices.icp.gov.ae/echannels/web/client/default.html সাইটে প্রবেশ করুন। আর এটি হচ্ছে একমাত্র সাইট যা দিয়ে আপনি দুবাইয়ের ভিসা চেক করতে পারবেন। এরপর নিচে দেওয়া ধাপ অনুসরণ করুন

ধাপ-২: ফাইল ভেলিডিটি পেইজে প্রবেশ

এটা পেয়ে পাবলিক সার্ভিসে নামের একটি অপশন রয়েছে। যেটাতে প্রবেশ করতে হবে, এর প্রবেশ করার পর ফাইল ভ্যালিডিটি পেইজে প্রবেশ করতে হবে।

ধাপ-৪: পাসপোর্টের তথ্য প্রদান

উপরে ধাপ গুলো অনুসরণ করার পর, আপনাকে পাসপোর্ট এর বিভিন্ন তথ্য প্রদান করতে হবে। প্রথম দুটি তথ্য হচ্ছে পাসপোর্ট ইনফরমেশন এবং ভিসা। এরপর পরবর্তী ধাপে আপনাকে Passport Expire Date আপনার প্রদান করতে হবে এবং ন্যাশনালিটিতে ২০৭ লিখতে হবে। সর্বশেষ I’m not a robot এ টিক দিন এবং সর্বশেষ Search ক্লিক করলেই নিচের দিকে ভিসার বিপরীতে তথ্য গুলো দেখাবে।

ভিসা চেক করার প্রয়োজনীয়তা

সকল তথ্যের ভিত্তিতে ভিসা চেক করার প্রয়োজনীয়তা সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ। কেননা দালাল চক্র আপনার কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়ে যেতে পারে। তাই সঠিকভাবে আপনার ভিসা সম্পন্ন করে দিয়েছি কিনা তা জানতেই ভিসা চেক করার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে অপরিসীম।

শেষ কথা

আশা করতেছি আপনারা এই পোস্ট থেকে অনেকটা উপকৃত হয়েছেন। এবং এই পোস্ট থেকে পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে ভিসা চেক জানতে পেরেছেন। প্রত্যেকটি দেশের ভিসা চেক করার নিয়ম ভিন্ন রকম। তবে আপনি যেকোনো দেশের ভিসা চেক করতে অনলাইনে এসেই সম্পন্ন করতে পারবেন। তবে নিজে নিজে এই কাজটি করতে পারেন কোন রকম কারো সাহায্য নিতে হবে না। অতঃপর এই পোস্ট করে উপকৃত হলে অবশ্যই আপনার আশেপাশের ব্যক্তিদেরকে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment