ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের বেতন কত ২০২৪

বাংলাদেশের প্রত্যেকটা ইউনিয়ন পরিষদে একজন করে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রয়েছে। আমাদের সকলের এই ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের অজানা কিছু তথ্য রয়েছে। তা কেউই হয়তো জানেন না। ইউনিয়ন পরিষদের বিভিন্ন ধরনের দায়িত্ব পালন করে থাকে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। প্রত্যেকটা ইউনিয়নের প্রতিনিধিত্ব করে থাকেন এবং নানা ধরনের সমস্যার সমাধান করে থাকেন একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান। আজকের এই প্রতিবেদনে আপনাদেরকে জানাবো ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের বেতন কত এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের নানাবিধ সকল ধরনের অজানা তথ্য। তা এখনো ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের সম্পর্কে এখনো অজানা তাদের জন্যই আজকের এই সুন্দরতম প্রতিবেদনটি।

আপনারা অনেকেই অনলাইনে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সম্পর্কে নানা ধরনের তথ্য জানার জন্য অনলাইনে খুজে থাকেন। কিন্তু সঠিক তথ্য কোথায় খুজে পান না। তাই তারা আজকে সঠিক ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে আসছেন। আমাদের এই ওয়েবসাইটে সকল ধরনের সঠিক তথ্যটি খুঁজে পাবেন। তাই এর প্রতিবেদনেও তার বিকল্প নেই। যদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সম্পর্কে অজানা তথ্যটি জানতে চান এবং একজন ইউনিয়ন পরিষদের কি কি দায়িত্ব কি কাজ করে থাকে সকল ধরনের যাবতীয় আমাদের প্রতিবেদনের সাজানো হয়েছে। তাই সকল সঠিক তথ্য জানার জন্য আপনাকে অবশ্যই সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি পড়ার অনুরোধ রইল।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বেতন

যদি আমরা সকলে অবগত আছি যে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের আসন সংখ্যা কত। সাধারণত প্রত্যেকটা ইউনিয়ন পরিষদে একজন করে চেয়ারম্যান রয়েছে। ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাধারণত তার নির্দিষ্ট একটি ইউনিয়নের দায়িত্ব পালন থাকে। তিনি শুধু ওই ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্ব পালনে কর্মরত থাকেন। একটা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের পাঁচ বছর মেয়াদী স্থায়িত্বকাল রয়েছে।

পাঁচ বছর পর পর সরকার নির্বাচনের মাধ্যমে প্রত্যেকটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের পরিবর্তন করে থাকে। ইউনিয়নের জনগণ ভোট প্রদান করে যাকে নির্বাচিত করে সাধারণত তিনি ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে থাকে। অনেকের প্রশ্ন থাকে এই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বেতন কত। তা নিয়ে আজকে আলোচনা করব এই প্রতিবেদনে।

একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের যেটুকু দায়িত্ব পালন করে থাকে, তার ওপর ভিত্তি করে যে সম্মানীএটুকু পায় তা সত্যিকার অর্থে অনেকটাই কম বলে মনে হয়। মূলত ইউনিয়ন চেয়ারম্যান যে বেতন পান তা সাধারণত ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পায় ৪৫০০ টাকা এবং সরকার কর্তৃক সম্মানী পায় ৫৫০০ টাকা। দুটো মিলিয়ে মোট ১০ হাজার টাকা সম্মানি পেয়ে থাকে একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান।

চেয়ারম্যানের অর্থ কি

চেয়ারম্যান হলো যে কোন সংস্থার প্রধান ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত। আমাদের পাড়া বা মহল্লায় কিংবা ইউনিয়ন পরিষদে জনসাধারণের যে প্রতিনিধিত্ব করে থাকেন তাকে সাধারণত চেয়ারম্যান বলে আখ্যায়িত করা হয়। মূলত তিনি হলেন ইউনিয়ন পরিষদের প্রধান ব্যক্তিত্ব। তিনি একটা ইউনিয়ন পরিষদের সকল দায়িত্ব এবং জনসাধারণের যেকোনো ধরনের সমস্যার সমাধান করে থাকে।

এবং ধরতে গেলে প্রত্যেকটা ইউনিয়ন পরিষদে অভিভাবক বলা হয়। একটা গ্রামের যত ধরনের সমস্যা রয়েছে দলগতভাবে তিনি প্রতিনিধিত্ব করে সমস্যার সমাধান করে থাকে। সাধারণত বলতে গেলে চেয়ারম্যান অর্থ হলো যেকোনো ধরনের সংস্থা বা সামাজিক কমিটি বা স্বেচ্ছাসেব ক সংগঠনের প্রধান ব্যক্তিত্ব যাকে আমরা সভাপতি বলে থাকি।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বেতন ২০২৪

যেহেতু ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্বকাল পাঁচ বছর মেয়াদী হয়ে থাকে। সেহেতু তাদের সম্মানিতা ও তেমন বৃদ্ধি হয় না। কারণ পাঁচ বছর মেয়াদী একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পরবর্তীতে সেই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত না হতে পারে।

সে ক্ষেত্রে তাদের সম্মানি সরকার একটি নির্দিষ্ট পর্যায়ে রেখেছেন। তবে তাদের মূল বেতন থেকে ৫০ শতাংশ সরকারি কোষাগার থেকে প্রদান করা হয় এবং বাকি ৫০ শতাংশ নিজ নিজ ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রদান করা হয় । বর্তমানে একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বেতন পায় ১০ হাজার টাকা।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসে কত টাকা পান

সত্যিকার অর্থে পড়তে গেলে আমরা অনেকেই মনে করে থাকি একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের মাসিক বেতন অনেক বেশি। মূলত তাদের বেতন খুবই সামান্য হয়ে থাকে। যদিও আমরা এটা বিশ্বাস করতে চাই না বলতে গেলে এটাই সত্যি। তার দায়িত্ব ও কর্তব্য অনুযায়ী তাদের সম্মান এটা খুবই স্বল্প হয়ে যায়। এটা সরকার কর্তৃক তাদের বেতন নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে।

চলুন জেনে নেওয়া যাক একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসে কত টাকা পেয়ে থাকেন। যারা এখনো ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসে বেতন সম্পর্কে জানেন না তারা এই প্রতিবেদন থেকে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন। আপনি হয়তো জেনে বিশ্বাসই করতে পারবেন না যে একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসে মাত্র ১০ হাজার টাকা পেয়ে থাকেন।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের বেতন সংবাদ

একজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের সম্মানে ছিল খুবই স্বল্প। কিন্তু স্থানীয় সরকার তাদের বেতন বৃদ্ধি করার একটি সংবাদ দেন। পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের, সিটি কর্পোরেশন, জেলা পরিষদ জনপ্রতিনিধিদের বেতন ভাতা অনুমতি দেন স্থানীয় সরকার।

স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীনে সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর, পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্য, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সম্মানী ভাতা বৃদ্ধি করা হচ্ছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ থেকে আজ মঙ্গলবার এ-সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। আগামী ১ জুলাই থেকে এই বর্ধিত সুবিধা কার্যকর হবে।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নিয়োগ প্রক্রিয়া

যদি আমরা অবগত আছি যে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের নিউ প্রক্রিয়া হয় সাধারণত, একটি ইউনিয়নের জনসাধারণ ভোট প্রদানের মাধ্যমে একজনকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিনিধিত্ব করা হয়। পাঁচ বছর মেয়াদী একজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ভোট প্রদানের মাধ্যমে পরিবর্তন হয়ে থাকে।

পাঁচ বছর পর পর স্থানীয় সরকার কর্তৃক ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের জন্য প্রতিনিধিত্ব গঠন করে দেয় এবং ইউনিয়ন পরিষদের সকল জনগণ ভোট প্রদানের মাধ্যমে একজনকে ওই ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিনিধিত্ব দেয়। তিনি তিনি ওই ইউনিয়ন পরিষদের সকল দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করে থাকেন। এভাবে একটি ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান নিয়োগ প্রক্রিয়া হয়ে থাকে।

বর্তমান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বেতন

বর্তমান প্রেক্ষাপটে একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের বেতন খুবই সামান্য। ধরতে গেলে একজন চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীর সমান। যদিও বর্তমানে স্থানীয় সরকার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এবং জেলা পরিষদ সিটি কর্পোরেশন জনপ্রতিনিধিদের বেতন ভাতার বৃদ্ধির নির্দেশ দিয়েছেন তবুও তাদের সম্মানিতা খুবই স্বল্প হয়ে গেছে।

অনেকের ধারণা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের হয়তো অনেক বেশি। কিন্তু মোটেও তা সত্যি নয়। একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের দায়িত্ব ও কর্তব্যের সাথে তাদের সম্মানিতা মানানসই নয়। তবুও তারা জনগণের সেবা প্রদান করে যাচ্ছে এবং তাদের দায়িত্ব নিয়ে যাচ্ছে।

ইউনিয়ন পরিষদের অর্থ কি

এই ইউনিয়ন পরিষদ বলতে আমরা সাধারণত বুঝি বাংলাদেশের পল্লী অঞ্চলের সর্বনিম্ন প্রশাসনিক একক। ১৮৭০ এর অধীনে ইউনিয়ন পরিষদ সৃষ্টি করা হয়। সাধারণত কয়েকটি গ্রাম নিয়ে একটি ইউনিয়ন পরিষদ গঠন করা হয়। আর প্রত্যেকটা ইউনিয়ন পরিষদের একজন করে প্রতিনিধিত্ব নিয়োগ করা হয়। এই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে একটি স্থানীয় সরকার ইউনিটের ধারণার সৃষ্টি হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে এর ভূমিকা নিরাপত্তামূলক কর্মকাণ্ডে সীমাবদ্ধ থাকলেও পরবর্তী কালে এটিই স্থানীয় সরকারের প্রাথমিক ইউনিটের ভিত্তিরূপে গড়ে উঠে।

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এর কাজ কি

একজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাধারণত গ্রামবাসীদের নিরাপত্তা এবং তাদের সমস্যা সমাধানের কাজের নিয়োজিত থাকে সবসময়। এবং সরকার কর্তৃক নানা ধরনের আদেশ অনুযায়ী কাজ করে একজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। গ্রাম পুলিশের সহায়তায় এলাকারশান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা করেন।

বিভিন্ন সময়ে ঘোষিত সরকারী আইন ওসার্কুলার অনুযায়ী অর্পিত অন্যান্য প্রশাসনিক দায়িত্বও পালন করেন চেয়ারম্যান। এলাকার অপরাধ দমন, শান্তি শৃঙ্খলারক্ষা এবং দাঙ্গা-হাঙ্গামা প্রতিরোধ করার জন্য চেয়ারম্যান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট থেকে সহযোগিতা গ্রহণ করেন।

একজন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব ও কর্তব্য

দায়িত্ববান একজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থাকে অনেক। ছোট ছোট কয়েকটি গ্রাম নিয়ে একটি ইউনিয়ন পরিষদ গঠন করা হয়। সে ইউনিয়ন পরিষদে প্রায় এক হাজার থেকে ২০০০ জনসংখ্যা বসবাস করে থাকে। প্রত্যেকটা জনগণের নিরাপত্তা এবং শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা প্রতিরোধ করার জন্য একজন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের ভূমিকা গুরুত্ব অপরিসীম।

যেহেতু ইউনিয়ন পরিষদের সকল দায়িত্ব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এর উপর থাকে এবং তা সরকার কর্তৃক নিয়োজিত করা হয় এবং বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীকে সহযোগিতা গ্রহণ করে সে ক্ষেত্রে বলায় যায় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব ও কর্তব্য কতটুকু। কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ, মহামারী বাসংক্রামক রোগ এবং ফসলে পোকার আক্রমণদেখা দিলে চেয়ারম্যান উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান।

এছাড়াও একটি ইউনিয়ন পরিষদের সকল ধরনের কৃষি এবং মৎস্য চাষে এবং কি ফসল উৎপাদনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান। এ সকল বিষয়ে মৎস্য ও কৃষি ফসল উন্নয়নের জন্য তিনি স্থানীয় কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করেএলাকার জনসাধারণকে সহায়তা করেন।

এবং কি রাস্তাঘাট সাঁকো এবং পুল নির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে একজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। পল্লীপূর্ত কর্মসূচী এবং কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচীসহ অন্যান্য কর্মসূচীর মাধ্যমে খাল খনন, পুনঃখনন এবং ভৌত অবকাঠামো তৈরিতে চেযারম্যান সহযোগিতা করেন।

এছাড়াও রাস্তার পাশে বাতি জ্বালানো, গাছ লাগানো,এলাকা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা, পুকুর ও খালবিলের কচুরিপানা পরিস্কার এবং সরকারী জমি ও সম্পত্তি রক্ষা করার ব্যবস্থা করেন চেয়ারম্যান। তিনি যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নয়নেও ভূমিকা রাখেন। এবং জন্ম এবং মৃত্যু পোষ্য সংক্রান্ত উত্তরাধিকার, জাতীয়তা ও চারিত্রিক সনদ পত্রপ্রদান করেন। রিলিফ সামগ্রী বিতরণ, চিকিৎসার জন্য রোগীদের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়ার পরামর্শ প্রদান, বন্যা ও মহামারী নিয়ন্ত্রণ, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধের ব্যবস্থা করেন। খাস জমি বন্টন ও ভূমিহীন কৃষক চিহ্নত করেন।

আমাদের শেষ কথা

আজকের এই প্রতিবাদে আপনাদের মাঝে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের বেতন কত এবং ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের সকল দায়িত্ব কাজ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করেছি। আশা করছি এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আপনারা সকলেই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সম্পর্কে অজানা তথ্যগুলো জানতে পেরেছেন। যাদের ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সম্পর্কে অনেকের যে ভুল ধারণা ছিল আশা করছি এই প্রতিবেদন পড়ার পর, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এর উপর আর কোন ভুল ধারণা নেই। আমাদের প্রতিবেদন যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই সকলের মাঝে শেয়ার করবেন, ধন্যবাদ।

Leave a Comment