বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট চেক

কোন জায়গায় ভ্রমণের জন্য যদি বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি একটি টিকিট ক্রয় করে থাকেন তাহলে আমাদের এই পোস্ট থেকে তা চেক করে নিন। এছাড়া কিভাবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকেট চেক করা হয় তা আমাদের এই পোস্ট থেকে জানতে পারবেন। বিশেষ করে আপনার ভ্রমণের একদিন অথবা কয়েক ঘন্টা পূর্বে অবশ্যই আপনার বিমানের টিকিট চেক করুন।

মাঝেমধ্যে দেখা যায়, টিকেট ক্রয় করার মানে পরেও অনেকের টিকেট কোন কারণে বাতিল হয়ে যায়। যেটা একজন টিকিট গ্রহণকারী বুঝতেই পারেনা। তাই কোন জায়গায় যাত্রার পূর্বে সর্তকতার সাথে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট চেক করুন। এছাড়াও আপনার ক্রয়কৃত কোথায় এবং কখন ভ্রমণ করছে। এবং কবে ফিরে আসবে তার তথ্য এই চেক করার মধ্য দিয়ে জানতে পারবেন।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট চেক

বাংলাদেশের একমাত্র সরকারি বিমান সংস্থা এবং পতাকাবাহী বিমান হচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। এ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সাধারণত হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে এ বিমানের সকল কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এছাড়াও  চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দর এবং সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে পরিচালনা করা হয়।

এই বিমান সংস্থাটি বর্তমানে ১৬ টি দেশে এ কার্যক্রম ধারাবাহিকভাবে চলছে। এবং ২৫ টি গন্তব্যে প্রতিনিয়ত চলাচল করে। এই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কার্যক্রম শুরু করে ৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৭২ সালে। এবং উল্লেখ্য যে এ বিমানের প্রধান কার্যালয় বলাকা ভবন, কুর্মিটোলা, ঢাকা–১২২৯, বাংলাদেশ।

স্বল্প খরচে আপনি বাংলাদেশ থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেতে পারেন এই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ব্যবহার করে। তো বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বাংলাদেশী নাগরিক এই এয়ারলাইন্স ভিন্ন দেশে যাতায়াতের জন্য ব্যবহার করে থাকেন। তবে যে কোন নাগরিক এই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকিট নিজে নিজে অনলাইন থেকে ক্রয় করতে পারেন।

আবার চাইলে টিকেট ক্রয় করার পরবর্তীতে নিজে নিজেই অনলাইনে মাধ্যমে তার চেক করে নিতে পারেন। তাই কিভাবে চেক করতে হয় তার সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া আমাদের আলোচনায় উল্লেখ করা হয়েছে। তাই সম্পূর্ণ পোস্ট বিস্তারিত দেখুন।

বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ওয়েব চেক ইন

যে কোন দেশে ভ্রমণের পূর্বে অবশ্যই এয়ারলাইন্সের একটি টিকিট ক্রয় করতে হয়। আর আপনার টিকেটটি যদি বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের হয়ে থাকে তাহলে সে ক্ষেত্রে অন্য কোথাও না গিয়ে আমাদের এই পোস্ট থেকে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকিট চেক করুন অনলাইনে মাধ্যমে।

অনলাইনের মাধ্যমে চেক করতে হলে আপনাকে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্স এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। আর যেখান থেকে আপনি এই এয়ারলাইন্সের টিকিট ক্রয় করেছিলেন। ঠিক সেখানেই কয়েকটি অপশন রয়েছে। যেখান থেকে আপনি চাইলে খুব সহজেই টিকিট ক্রয় করার পরবর্তীতে টিকিট চেক করে নিতে পারেন।

আর টিকিট চেক করে নেওয়া অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। অনেক সময় টিকেট বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে বিভিন্ন কারণে। তবে আপনার টিকিট চেক করতে বেশি কিছু ডকুমেন্টের প্রয়োজন হবে না। এক্ষেত্রে আপনার পিএনআর নাম্বার এর প্রয়োজন হবে এবং আপনার নামের শেষের নাম অংশের প্রয়োজন হবে। এছাড়া অনেকেই পাসপোর্ট নাম্বার দিয়েও এয়ারলাইন্সের টিকিট চেক করতে পারেন। তাই সম্পূর্ণ পোস্ট বিস্তারিত দেখুন।

বিমানের টিকেট চেক করার নিয়ম

আপনি যদি google এ প্রবেশ করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিখে অনুসন্ধান করেন তাহলে প্রথমেই আপনি এই https://www.biman-airlines.com/ লিঙ্কে দেখতে পারবেন। অর্থাৎ এই লিংকে প্রবেশ করেই যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করা হয়। যেমন যেকোনো গন্তব্যের জন্য বিমানের টিকেট চেক করা হয়।

সর্বোপরি বিমানের টিকেট ক্রয় করা হয় এই ওয়েবসাইট থেকেও। ফ্লাইট, সিডিউল ইত্যাদি খুব সহজে চেক করে নিতে পারবেন। অত এর সঠিক তথ্য জেনে রাখুন, আপনি টিকিট কেটেছেন, অথচ আপনার টিকেটের বর্তমান অবস্থা কি তা জানবে না তা কি করে হয়।

এজন্য উপরের লিংকে প্রবেশ করলে নিচের দেওয়া ছবিটির মত একটি ডিসপ্লে আপনার সামনে প্রদর্শিত হবে। যেখানে প্রথমে বুক ফ্লাইট, অর্থাৎ এখান থেকে আপনি নতুন করে আবার টিকেট ক্রয় করতে পারবেন। এছাড়াও মডিফাইট ট্রিপ,Web Check-in, Flight Status Flight Schedule ইত্যাদি খুব সহজে চেক করে নেওয়া যায়।

পিএনআর কি?

আপনি যখন একটি টিকেট ক্রয় করেছিলেন তখন আপনাকে আর সংখ্যার কয়েকটি কোড প্রদান করা হয়েছিল। আর এই টিকেট চেক করতে পিএনআর নাম্বার অবশ্যই প্রয়োজন। তাই এটি সংগ্রহ করে রাখুন। যাতে যে কোন সময় আপনার টিকেট চেক করতে এই পি এন আর নাম্বারটি খুব সহজে ব্যবহার করতে পারেন। তবে আপনি চাইলে পিএনআর নাম্বার ব্যবহার করে টিকেট চেক করতে পারবেন।

আর বিমানের টিকিট চেক করতে গেলে এই একমাত্র পি এন আর নাম্বার এবং আপনার নামের শেষের অংশটি প্রয়োজন হয়। আর এই পিএনআর নাম্বার আপনার মোবাইলে জিমেইল অথবা ইমেইলে থেকে সংগ্রহ করতে পারেন। অতএব আরো বিস্তারিত তথ্য জানতে একটু নিচে প্রবেশ করুন।

ট্রিপের তথ্য চেক করবেন যেভাবে

অনাগত কারণে বা ফ্লাইট এর বিভিন্ন সমস্যার কারণে টিকিটের ডেট পরিবর্তন হতে পারে। অথবা আপনার টিকিট ক্যানসেল হয়ে যেতে পারে। তাই যারা টিকিট কেটে নিয়েছেন তাদের উচিত মাঝেমধ্যেই টিকিট কেটে নেওয়া। তবে টিকেট চেক করবেন অবশ্যই নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী। এছাড়া উল্লেখিত Domestic ও International Flight Schedule খুব সহজে ঠিক করতে পারবেন।

আপনার টিকেট চেক করার সাথে সাথে ফ্লাইট নম্বর, ছেড়ে যাওয়া ও ফিরে আসার দিন ইত্যাদি যাবতীয় তথ্য দেখতে পাবেন। বিশেষ করে বিমানে উঠার পূর্বে অবশ্যই যাত্রীদেরকে বিমানে টিকেট চেক করে নেয়া উচিত। কোথায় যাচ্ছে এবং কবে ফিরে আসবে সেই দিন তারিখ গুলো ঠিক আছে কিনা তা ভালোভাবে চেক করে নেওয়া উচিত।

অতএব Domestic Flight এক্ষেত্রে বীমার ছাড়ার তিন ঘন্টা পূর্বে আপনার ফ্লাইট চেক করুন। আর ইন্টারন্যাশনাল ফ্লাইটের ক্ষেত্রে অবশ্যই চার ঘন্টা আগে ওয়েব চেক ইন বন্ধ হয়ে যায়, তাই চার ঘন্টা আগে চেক করে নিন বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে। এক্ষেত্রে আপনার ট্রিপের তথ্য চেক করার পাশাপাশি ওয়েব চেক ইন প্রবেশ করুন। তারপর আপনার পি এন আর রিজার্ভেশন কোড বসিয়ে দিন ৬ ক্যারেক্টারের। সর্বশেষ আপনার লাস্ট নাম বসিয়ে সার্চ বাটনে ক্লিক করুন।

ফ্লাইট স্ট্যাটাস চেক করবেন যেভাবে

আপনার আপনার ফ্লাইট স্ট্যাটাস চেক করতে হলে এই https://www.biman-airlines.com/#flight-status লিংকে প্রবেশ করুন। অথবা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে ফ্লাইট স্ট্যাটাস অপসনে ক্লিক করুন নিচে দেওয়া ছবির মত। তারপর রাউট(Route) আপনি ক্লিক থাকা অবস্থায় আপনার দেশ থেকে অন্য দেশের বিমানের যাত্রার আজকের দিন থেকে আগামীকালের দিনের অবস্থা সম্পর্কে জানতে পারবেন।

যে কক্সবাজার থেকে আবুধাবির আজকের এবং আগামীকালের যাত্রার ফ্লাইট স্ট্যাটাস দেখানো হয়েছে। অথবা সবগুলো সিলেক্ট করে সার্চ বাটনে ক্লিক করুন। এখানে আপনি Domestic ও International Flight Schedule গুলো সম্পর্কে জানতে পারবেন। আশা করা যায় আপনি আপনার স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার দিয়ে খুব সহজে ঘরে বসেই করে নিতে পারবেন।

ফ্লাইট শিডিউল চেক করবেন যেভাবে

আপনি যখন টিকেট করার করেছিলেন তখন আপনার কাছে একটি পি এন আর নাম্বার দেওয়া হয়েছে। এবং সাথে আপনাকে জানানো হয়েছে আপনার ফ্লাইটের তারিখ সম্পর্কে। তবে মাঝে মাঝে আপনার সিডিউল চেক করে নেয়া উচিত। কখন এবং কোন ক্যাটাগরির বিমানে করে আপনি যাত্রা করতে যাচ্ছেন সিডিউল থেকে জানতে পারবেন।

আপনার ফ্লাইটের সিডিউল চেক করা এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যে আপনি আপনার বিমানের সিডিউল চেক করে আপনার ফ্লাইটের সময় জানতে পারবেন। আর আপনি চাইলে এখান থেকে আপনার পছন্দমত আপনার সময় অনুযায়ী যে কোন টিকেট করার নিতে পারেন।

  • এজন্য আপনাকে পূর্বের বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটে প্রকাশ করতে হবে।
  • তারপর ফ্লাইট শিডিউল নামের অপশনটিতে ক্লিক করুন।
  • সেখানে চলে যাওয়ার পর আপনার স্থান এবং আপনার গন্তব্যের স্থান নির্বাচন করুন।
  • নিচে আপনাদের সুবিধার্থে ফ্লাইং ফ্রম Flying form এবং Flying To নির্বাচন করুন।
  • তারপর আপনার নির্ধারিত ডেট সেখানে সিলেক্ট করুন।
  • সিলেক্ট করার পর সার্চ বাটনে ক্লিক করুন।

আপনার যাত্রা বিমান বা ফ্লাইট যেকোনো সময় পরিবর্তন হতে পারে। তাই যাত্রার বেশিদিন পূর্বে এটি চেক না করে যাত্রার আগে বা একদিন পূর্বে চেক করুন। এছাড়া উল্লেখিত আপনি যখন টিকিট বুকিং করতে যাবেন ঠিক তখন আপনার বিমানে ফ্লাইট শিডিউল দেখে টাইম নির্ধারণ করে টিকিট ক্রয় করুন বা টিকেট বুকিং করুন।

বিমান বাংলাদেশ Flight Status ও Flight Schedule চেক

এই https://www.biman-airlines.com/# flight-schedule লিংকে প্রবেশ করে আপনি ফ্লাইট স্ট্যাটাস ও ফ্লাইট শিডিউল চেক করতে পারবেন। ইতিমধ্যে উপরে এই ফ্লাইট স্টেটাস এবং ফ্লাইট শিডিউল সম্পর্কে বিস্তারিত দেখিয়ে দেওয়া হয়েছে যে কিভাবে চেক করবেন। আশা করতেছি উপরের দুটি প্যারাগ্রাফ দেখে নিয়েছেন। অতএব নিচের দেওয়া ছবিতে দেখুন, লাল চিহ্ন আকারের বক্সগুলো থেকে Flight Status ও Flight Schedule চেক করতে পারবেন।

পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে টিকেট চেক

আপনার পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে টিকেট চেক করতে হবে না। টিকেট চেক করতে হলে আপনাকে দেওয়া পিএনআর নাম্বার দিয়ে চেক করতে হবে। আর এই পিএনআর নাম্বার টিকেট বুকিং করার সময় আপনাকে দিয়ে দেওয়া হবে। তাই সেই পিএনআর নাম্বার সঠিকভাবে সংগ্রহ করে রাখুন যাতে পরবর্তীতে টিকেট চেক করতে ব্যবহার করতে পারেন।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স টিকেট দাম কত

এ বিমান যেহেতু বাংলাদেশের বিভিন্ন বিমান বন্দরে আবার বাংলাদেশের বিমানবন্দর থেকে বিশ্বের অন্য বিমানবন্দরের প্রতিনিয়ত চলাচল করে। তাই প্রত্যেকটি গন্তব্যের জন্য আলাদা আলাদা টিকিটের দাম নির্ধারিত হয়। উদাহরণ হিসেবে যদি আপনাদেরকে জানাতে চাই, তাহলে বাংলাদেশের ঢাকা বিমানবন্দর থেকে চট্টগ্রামের বিমানবন্দরে পৌঁছাতে এই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকিট মূল্য ২,৯১০ টাকা।

এছাড়া উল্লেখিত আন্তর্জাতিক রুটে চলাচলকৃত ঢাকা থেকে আবুধাবির উদ্দেশ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রতিটি টিকেট মূল্য হবে ৪৩,৪৭৬ টাকা। এবং ঢাকা থেকে ব্যাংককের প্রতি টিকেট মূল্য ৭৮,৬৫৩ টাকা। এবং ঢাকা থেকে কলকাতা যেতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ব্যবহার করলে প্রতিটি মূল্য হবে ৭,৬১৩ টাকা।

ঢাকা থেকে সিঙ্গাপুর যেতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ব্যবহার করলে এর প্রতি টিকেট মূল্য হবে ৩২,৭৫৪ টাকা। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্স ব্যবহার করলে এর প্রতি টিকেট মূল্য হবে ৪০,৬৩৩ টাকা। অতএব আপনাদেরকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকিট মূল্য সম্পর্কে বুঝাতে গেলে সর্বনিম্ন টিকেট মূল্য ২০০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ প্রায় লক্ষ টাকা হতে পারে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ফোন নাম্বার

বাংলাদেশের এই জনপ্রিয় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করলে আপনি সেখানে উপরের ডান পাশে তাদের কন্টাক্ট নাম্বার দেখতে পারবেন। তো আপনাদের জন্য সেই কন্ট্রাক্ট নাম্বার এখানে উল্লেখ করেছি। আপনাদের যে কোন সমস্যা সমাধানের জন্য তাদের কাছে ফোন করতে পারেন। তাই আপনার যদি টিকিট নিয়ে কোন ধরনের সমস্যা থেকে থাকে তাহলে এই নাম্বারে এখনই ফোন করুন।

এবং তাদের কাছে আপনার সমস্যাটি শেয়ার করুন। আশা করা যায় আপনার সমস্যা তাদের কাছে শেয়ার করে সমাধান করতে পারবেন। অতএব বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর ফোন নাম্বার হচ্ছেঃ+8801990997997, এছাড়া তাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে এই(ibebiman@biman.gov.bd)  ইমেইলে ইমেইল করতে পারেন।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কল সেন্টার নাম্বার

অতএব যারা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কল সেন্টারের নাম্বার অনুসন্ধান করছেন। তারা এই নাম্বারটি সংগ্রহ করে রাখুন। যদি আপনি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কোন টিকেট বুকিং করে থাকেন। কেননা যে কোন সময় আপনার এই টিকিট নিয়ে সমস্যার তৈরি হতে পারে, টিকিট ক্যানসেল হয়ে যেতে পারে। তাই তাদের কল সেন্টার নাম্বারটি সংগ্রহ করে রাখুন। কল সেন্টার নাম্বারটি হচ্ছেঃ +88-02-8901600

শেষ কথা

টিকেট চেক করা অনেক গুরুত্বপূর্ন বিষয়, তাই যখনই টিকেট ক্রয় করবেন ঠিক তখনই আপনার টিকেট চেক করে নিবেন। আশা করতেছি আপনারা আমাদের  এই পোস্ট থেকে অনেকটা উপকৃত হয়েছেন। যদি এই পোস্ট থেকে উপকৃত হয়ে থাকেন। তাহলে অবশ্যই আপনার আশে পাশে থাকা ব্যাক্তিদের কে এই পোস্ট শেয়ার করে জানিয়ে দিবেন। ধন্যবাদ

Leave a Comment